• মঙ্গলবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৫ ১৪২৮

  • || ১২ সফর ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী টিকা নেওয়ার পর খোলার সিদ্ধান্ত নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয় নিতে পারবে বঙ্গবন্ধু ভাষণের দিনকে এবারও ‘বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে’ ঘোষণা ফিনল্যান্ডে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোর অংশগ্রহণ চান প্রধানমন্ত্রী `লাশের নামে একটা বাক্সো সাজিয়ে-গুজিয়ে আনা হয়েছিল` টকশোতে কে কী বলল ওসব নিয়ে দেশ পরিচালনা করি না: প্রধানমন্ত্রী উপহারের ঘরে দুর্নীতি তদন্তে দুদককে নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী জিয়াকে আসামি করতে চেয়েছিলাম: প্রধানমন্ত্রী এটা তো দুর্নীতির জন্য হয়নি, এটা কারা করল? ওজোন স্তর রক্ষায় সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতকেও এগিয়ে আসতে হবে ওজোন স্তর রক্ষায় সিএফসি গ্যাসনির্ভর যন্ত্রের ব্যবহার কমাতে হবে ১২ বছরের শিক্ষার্থীরা টিকার আওতায় আসছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে ভাষণ দিবেন প্রধানমন্ত্রী প্রতিদিন প্রতি মুহূর্তে শোক প্রস্তাব নিতে চাই না: প্রধানমন্ত্রী এই সংসদে একের পর এক সদস্য হারাচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষার রূপরেখা সাজানোর নির্দেশ শিক্ষা কার্যক্রমকে সময়োপযোগী করা অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী আগেরবার সব ভালো কাজের জন্য মামলা খেয়েছিলাম: প্রধানমন্ত্রী

যেভাবে বুক শেলফ সাজালে বাড়বে ঘরের সৌন্দর্য

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৯ জুলাই ২০২১  

আজকাল এমন কোনো বাড়ি খুঁজে পাওয়া যাবে না, যে বাড়িতে একটিও বই নেই। বিশ্বে দিন দিন বাড়ছে শিক্ষিতের হার। এছাড়াও মানুষ নানা বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করতে পছন্দ করেন। তাই আর কিছু কেনা হোক চাই না হোক মাসে এক দুটি বই ঠিকই কেনা হয়। এভাবেই ঘরে জমা হতে থাকে অনেক অনেক বই।  

তাইতো এই অসংখ্য বই সাজাতে আমাদের বুক শেলফের প্রয়োজন হয়। নইলে ঘরের চারপাশে বই ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে। যা দেখতে খুবই বাজে লাগে। তবে বুক শেলফ কিনে বই সাজালাম আর হয়ে গেলো তা কিন্তু নয়। বুক শেলফ দিয়ে ঘর সাজাবেন নাকি সেটা ঘরের অন্য আসবাবের সঙ্গে সাযুজ্য রাখবেন সেটা আগে দেখে নিতে হবে।

তবে বুক শেলফ যেমনই হোক, এই শেলফে বই সাজানো আর তার যত্ন নেয়ার ব্যাপারটা কিন্তু তার ডিজাইনের উপর নির্ভর করছে না। আসলে বই সাজানো ও তার যত্নের উপর আপনার ঘরের সৌন্দর্য নির্ভর করে।

শুরু করা যাক বই সাজানো দিয়ে। বুক শেলফে এমনভাবে বই সাজাবেন যাতে যে কোনো বই খুব সহজেই আপনি খুঁজে পেতে পারেন। এর জন্য প্রথমেই আপনার বুক শেলফে যত বই রয়েছে সব নামিয়ে ফেলুন। এরপর বেছে ফেলুন সেই বইগুলো। মানে, যেগুলো আপনার খুব নিকটবর্তী সময় আর প্রয়োজন নেই। ভালো করে সেগুলো একটা বক্স-এর মধ্যে প্যাক করে রাখুন। হয়তো এমন বক্স সংখ্যায় তিন চারটা হবে

সেই বইগুলো আর শেলফে থাকবে না। এর বাইরেও এমন অনেক বই আছে যেগুলো আপনার প্রয়োজন নেই৷ সেগুলো আলাদা করে কাউকে দিয়ে দিতে পারেন। এর ফলে দেখবেন আপনার বুক শেলফে বইয়ের সংখ্যা বেশ সীমিত হয়ে পড়ছে। আর অল্প সংখ্যক বই গুছিয়ে ফেলা খুবই সহজ।

এরপর আসা যাক অন্য প্রসঙ্গে। লেখক, বিষয় বা বইয়ের নামের আদ্যক্ষর যা মিলিয়ে একটা তাকে আপনার পছন্দ মতো বইগুলো সাজিয়ে ফেলুন। এরপর যেটা মাথায় রাখবেন সেটা বইয়ের উচ্চতা বা বইয়ের প্রচ্ছদের রঙ। এর মাঝে একটা ভাগ করতে পারেন পড়া হয়েছে এমন বই আর পড়া হয়নি এমন বই।

এভাবে ক্যাটাগরাইজ করে বইগুলো সাজিয়ে দিন বুক শেলফে। ভারি বই তাকের তলার দিকে রাখুন। খেয়াল রাখবেন বইয়ের স্পাইন যেন বাইরের দিকে থাকে। এবার সাজানো তো হলো। তবে গোটাটাই যদি বই জায়গা করে নেয় সেটা অনেকটা ম্যারম্যারে লাগতে পারে। তাই বুক শেলফের কাছাকাছি রাখুন বাহারি টেবল ল্যাম্প বা বাহারি ইন্ডোরপ্ল্যান্ট। সবটা মিলিয়ে হয়ে উঠবে আকর্ষণীয়। তবে খেয়াল রাখবেন এই ধরনের সাজগোজে কিন্তু যত্ন নিত্যদিনের প্রয়োজন হয়।