• শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৬ ১৪২৯

  • || ৩০ জ্বিলকদ ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
পদ্মা সেতুতে নাশকতার চেষ্টা: আটক ১ সঞ্চয় বাড়ানোর পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা হচ্ছে নতুন মুদ্রানীতি সব ধরনের অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার বাজেট পাস হচ্ছে আজ নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক সায়মা ওয়াজেদের মমত্ববোধ রেল ক্রসিংয়ে ওভারপাস করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়কে সেতু-উড়াল সড়ক নির্মাণের নির্দেশ ব্যবসা বৃদ্ধিতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী তিন বাহিনীর সমন্বয়ে নিশ্চিত হবে পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা চাকরির একমাত্র বিকল্প শিক্ষিত বেকারদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলা পদ্মা সেতুতে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হবে স্বপ্নজয়ের পর অপার সম্ভাবনার হাতছানি পদ্মা সেতু: প্রধানমন্ত্রীকে এশিয়ার পাঁচ দেশের অভিনন্দন ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্পের সুষ্ঠু বিকাশে কাজ করছে সরকার পদ্মা সেতুর সফলতায় প্রধানমন্ত্রীকে কুয়েতের রাষ্ট্রদূতের অভিনন্দন নতুন প্রজন্মকে প্রস্তত হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী আমরা বিজয়ী জাতি, মাথা উঁচু করে চলবো: প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

গরমে ঈদের স্বস্তিদায়ক পোশাক

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৬ এপ্রিল ২০২২  

আর মাত্র কিছুদিন পরেই মুসলিমদের আনন্দের উৎসব ঈদ। এই ঈদকে ঘিরে ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে নানান আয়োজন। ঘরে ঘরে শুরু হয়েছে ঈদের শপিং। তবে গরমের মধ্যে ঈদ উদযাপন করা হবে বলে একটু চিন্তিত সবাই।

কারণ গরমে বাইরে বের হলে অবস্থা নাজেহাল হয়ে যায়। আর তার মধ্যে যদি সঠিক পোশাকটি বাছাই না করতে পারেন তবে তো অবস্থা আরো বেহাল হয়ে যাবে। তাইতো এই গরমে ঈদের আয়োজনে নিজের পছন্দের পোশাকটি বাছাইয়ের আগে মাথায় রাখতে হবে কিছু বিষয়। তবেই গরমেও আপনার ঈদ কাটবে স্বস্তিতে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক ঈদ পোশাক নির্বাচনের সময় কোন কোন বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখবেন-

 

ঈদের স্বস্তিদায়ক পোশাক।

ঈদের স্বস্তিদায়ক পোশাক।

কাপড়

গরমের পোশাকের ক্ষেত্রে কাপড়ের দিকে নজর রাখা জরুরি। এসময় সবচেয়ে মানানসই হলো সুতির কাপড়। এতে গরম কম লাগবে, সেইসঙ্গে পাবেন আরামও। এতে সারাদিনের ঘোরাফেরায় মোটেই অস্বস্তি লাগবে না। পাতলা তাঁত ও খাদি কাপড়ের পোশাকও এসময় আরামদায়ক। সুতি কাপড়ের পাশাপাশি লিনেন, ধুপিয়ান, ভয়েল, মসলিন, চিকেন ও তাতের কাপড় গরমের জন্য উপযোগী। যেহেতু উৎসব তাই এর আমেজও ধরে রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে পরতে পারেন কৃত্রিম মসলিন বা পাতলা চোষা কাতান।

পোশাকের রং

গরমের সময়ে পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে কাপড়ের মতোই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হলো এর রং। শীতে যেমন খুশি তেমন রঙের কাপড় পরা গেলেও গরমে তা চলবে না। এসময় সাদা, হালকা গোলাপি, আকাশি, হালকা হলুদ, ধূসর, হালকা বেগুনি, হালকা নীল, বাদামিসহ হালকা রঙের পোশাক বেছে নিন। সাদা ও অন্যান্য হালকা রঙের পোশাক তাপ শোষণ করার পাশাপাশি চোখকে প্রশান্তি দেয়। এসময় খুব বেশি উজ্জ্বল ও গাঢ় রঙের পোশাক পরবেন না। হালকা রঙের পোশাকেই আপনাকে সবচেয়ে বেশি উজ্জ্বল দেখাবে।

 

ঈদের স্বস্তিদায়ক পোশাক।

ঈদের স্বস্তিদায়ক পোশাক।

স্বস্তিদায়ক পোশাক

পোশাক ব্যবহারের অন্যতম উদ্দেশ্য হলো স্বস্তি। যে পোশাক আপনাকে অস্বস্তি দেবে, সেটি পরে নিশ্চয়ই বেশি সময় থাকতে পারবেন না। এসময় খুব বেশি টাইট ফিটিংস পোশাক পরলে সেটি অস্বস্তিদায়ক হবে। তাই একটু ঢিলেঢালা পোশাক বেছে নিন। হাইনেকের বদলে কলার ছাড়া গলার জামা পরতে পারেন। এতে আরাম পাবেন। হাতা ছোট হলেই ভালো। গরমে ফুল স্লিভ বা থ্রি কোয়ার্টার খুব একটা আরাম দেবে না।

ছেলেদের পোশাক

ঈদে ছেলেদের পোশাকের ক্ষেত্রেও সুতি কাপড়কে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। এই কাপড়ের পাঞ্জাবি, শার্ট, ফতুয়া কিনতে পাবেন। বাটিক, ভেজিটেবল ডাই, টাইডাই, সুবোরি, স্ক্রিনপ্রিন্ট, ব্লক ইত্যাদির ডিজাইন করা পোশাক পাওয়া যাবে। এসময় ফর্মালের বদলে কিনুন ক্যাজুয়াল শার্ট। এগুলো গরমে আরামদায়ক ও ফ্যাশনেবল। ফুল হাতার বদলে হাফ হাতার শার্ট পরতে পারেন। পোশাকের রং হিসেবে বেছে নিতে পারেন হালকা নীল, ধূসর, সাদা, অফহোয়াইট, অলিভ ঈত্যাদি। ঈদের নামাজ কিংবা দাওয়াতের জন্য এসময় সুতির পাঞ্জাবিই ভালো।