• শুক্রবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
আওয়ামী লীগ কারও পকেটের সংগঠন নয়: প্রধানমন্ত্রী তারেককে এনে সাজা বাস্তবায়ন করা হবে: শেখ হাসিনা নয়াপল্টনে লাশ ফেলার দুরভিসন্ধি কার্যকর করেছে বিএনপি: কাদের ক্রিকেট দলের জয়ের ধারা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে: রাষ্ট্রপতি ২০২৪-এর জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নির্বাচন, ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী মিরাজের অবিশ্বাস্য সেঞ্চুরি, বাংলাদেশের ২৭১ সমুদ্রকে নিরাপদ রাখতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী চলমান সকল যুদ্ধ থামান: বিশ্ব নেতাদের প্রতি শেখ হাসিনা বৈশ্বিক বাণিজ্যের স্বার্থে সমুদ্রকে নিরাপদ রাখা আবশ্যক ছাত্রলীগের প্রার্থীদের জীবনবৃত্তান্ত যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সমুদ্র সৈকতে ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে বিকেলে জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী আজ দ্বিতীয় ওয়ানডে, ভারতের বিপক্ষে আরেকটি সিরিজ জয়ের হাতছানি জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে আ.লীগকে ভোট দেয়: শেখ হাসিনা ব্যাংকে টাকা আছে, সমস্যা নাই: প্রধানমন্ত্রী জনগণ স্বতস্ফুর্তভাবে আ.লীগকে ভোট দেয়: শেখ হাসিনা ছাত্রলীগকে গুজবের জবাব দেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ৩০০ কোটি মানুষের বাজার ধরতে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান কৃষি জমি নষ্ট করে শিল্পকারখানা নয়: প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে অঙ্গীকারবদ্ধ: শেখ হাসিনা

অফিসে ঘুম আসছে, দূর করবেন যেভাবে

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

ভোর বা সকালে অফিসে এসে ঘুম ঘুম ভাব চলে আসে অনেকের। কোনোভাবেই চোখ টেনে তুলতে পারছেন না। মাথাটা ঝিম ঝিম করে। বার বার হাই তুলছেন। এমন একটি মুহূর্তে মনের ইচ্ছা, একটু যদি ঘুমাতে পারতাম। এ সময় ঘুম দূর করতে আপনি কী করবেন?

তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ুন
অফিস শেষ করে বাসায় গিয়ে রাতের খাবার খেয়ে তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ুন। তাহলে সকালেও তাড়াতাড়ি উঠতে পারবেন। সঙ্গে রাতে ঘুমও পর্যাপ্ত হবে। রাতে ভালো ঘুম হলে সারাদিন শরীর ও মন দুটোই প্রফুল্ল থাকবে এবং কাজ করার শক্তি ফিরে পাবেন।

পানি পান করুন
অফিসে যদি খুব বেশিই ঘুম পেয়ে থাকে তবে চট করে একগ্লাস পানি পান করুন। চোখে-মুখে পানি দিয়ে একটু ধুয়ে নিন। দেখবেন ঘুম দূর হয়ে গেছে।

হাঁটাহাটি করুন
একটানা কাজ না করে বিরতি নিন। এক জায়গায় টানা বসে থাকলে ঘুম আসতে পারে। তাই মাঝেমাঝে একটু হাঁটাহাঁটি করুন। ঘুম চলে যাবে।

চা কফি খান
ঘুম বা ঝিমুনি আসলে ভালো করে মুখ ধুয়ে আসুন। সারাদিন সতেজ ও কর্মক্ষম থাকার জন্য অন্তত এক ঘণ্টা পর পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ঘুমের ভাব অনেকটা দূর হবে। ত্বকও ভালো থাকবে, আবার সতেজও লাগবে। এরপর কড়া করে এক কাপ চা অথবা কফি খান। তবে দুপুরের খাবারের পরপরই চা বা কফি পান করবেন না। অন্তত আধা ঘণ্টা পর পান করুন।

অন্ধকারে আলো জ্বালান
আপনার অফিস রুমটিতে যদি আবছা অন্ধকার থাকে, তবে ঘুম তো আসবেই। আলো জ্বালুন বা আলো আসার ব্যবস্থা করুন। সূর্যের উজ্জ্বল আলো অফিস ঘরে ঢুকলে ঘুম এমনিও আসবে না।

আড্ডা বা কথা বলুন
একা একা না থেকে কাজের ফাঁকে সহকর্মীদের সঙ্গে একটুখানি আড্ডা বা দিন। অফিস সংক্রান্ত নয় এমন বিষয় নিয়ে গল্প করতে পারেন।

এছাড়াও চিনি অথবা চিনি জাতীয় যে কোনো খাবারের কারণে বেশি ঘুম পায়। তাই অফিসে যাবার পর এ ধরনের খাবার থেকে দূরে থাকুন। খাবার খাওয়ার পর বিরক্তিকর কাজগুলো এড়িয়ে চলুন। কারণ, বিরক্তিকর কাজগুলো মানসিকভাবে কাজের প্রতি অনীহা তৈরি করে, যার ফলে কাজ করার উৎসাহ হারিয়ে যায় এবং বারবার ঘুম পায়। এছাড়া দুপুরে ভারি খাবার না খেয়ে সামান্য পরিমাণে পুষ্টিকর খাবার খান। এতে শরীর সুস্থ থাকবে এবং ঘুমও আসবে না।