• মঙ্গলবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৫ ১৪২৮

  • || ১২ সফর ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
নিউইয়র্কে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী টিকা নেওয়ার পর খোলার সিদ্ধান্ত নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয় নিতে পারবে বঙ্গবন্ধু ভাষণের দিনকে এবারও ‘বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে’ ঘোষণা ফিনল্যান্ডে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোর অংশগ্রহণ চান প্রধানমন্ত্রী `লাশের নামে একটা বাক্সো সাজিয়ে-গুজিয়ে আনা হয়েছিল` টকশোতে কে কী বলল ওসব নিয়ে দেশ পরিচালনা করি না: প্রধানমন্ত্রী উপহারের ঘরে দুর্নীতি তদন্তে দুদককে নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী জিয়াকে আসামি করতে চেয়েছিলাম: প্রধানমন্ত্রী এটা তো দুর্নীতির জন্য হয়নি, এটা কারা করল? ওজোন স্তর রক্ষায় সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতকেও এগিয়ে আসতে হবে ওজোন স্তর রক্ষায় সিএফসি গ্যাসনির্ভর যন্ত্রের ব্যবহার কমাতে হবে ১২ বছরের শিক্ষার্থীরা টিকার আওতায় আসছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে ভাষণ দিবেন প্রধানমন্ত্রী প্রতিদিন প্রতি মুহূর্তে শোক প্রস্তাব নিতে চাই না: প্রধানমন্ত্রী এই সংসদে একের পর এক সদস্য হারাচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষার রূপরেখা সাজানোর নির্দেশ শিক্ষা কার্যক্রমকে সময়োপযোগী করা অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী আগেরবার সব ভালো কাজের জন্য মামলা খেয়েছিলাম: প্রধানমন্ত্রী

শিশু রায়হান হত্যা মামলায় চরফ্যাশনে চার আসামির যাবৎজ্জীবন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২ সেপ্টেম্বর ২০২১  

চরফ্যাশন প্রতিনিধি :  চরফ্যাশন উপজেলার শশীভূষণ ১০ বছরের শিশু কেফায়েত উল্লাহ রায়হান হত্যা মামলার চার আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে চরফ্যাশন অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালত। বৃহম্পতিবার দুপুরে আদালত এই রায় ঘোষণা করেন।

দন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন শশিভূষণ থানার রসুলপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা জামাল উদ্দিন চৌকিদারের ছেলে মোস্তফা, ভাই ইকবাল, পিতা জামাল উদ্দিন চৌকিদার ও ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা নজীর আলি গাজীর ছেলে জয়নাল আবেদিন গাজী।

অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক নুরুল ইসলাম এ হত্যা মামলার রায়ে চার জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারদন্ড ও প্রত্যেককে একলক্ষ টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে তিন বছরের কারাদন্ডের রায় ঘোষনা করেন।

রায় সূত্রে জানা গেছে, দন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা ৩২ শতাংশ জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে ২০১৩ সালের মে মাসের ২০ তারিখ সোমবার বিকাল ৫টায় পরিকল্পিতভাবে একই এলাকার বাসীন্দা মাওলানা আবদুল্লাহ আল নোমানের ১০ বছরের নাবালক ছেলে কেফায়েত উল্লাহ রায়হানকে চৌকিদার বাড়ি সংলগ্ন ধান খোলা মাঠের পাশে গলাটিপে হত্যা করে। আসামিরা এ হত্যাকান্ড অন্যদিকে প্রবাহিত করার উদ্দেশ্যে লুঙ্গি দিয়ে প্যাচিয়ে বাঁশের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে শিশু রায়হানের মরদেহ।

পরবর্তীতে নিহত রায়হানের পিতা মাওলানা নোমান ২০১৩ সালের জুন মাসের ১৫ তারিখে চরফ্যাশন জুডিশিয়াল কোর্টে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার পর্যালোচনা শেষে বিজ্ঞ আদালত এই রায় দেন।