• রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
সূচকের ওঠানামায় পুঁজিবাজারে চলছে লেনদেন দুপুরে সচিবদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চার করে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি মিছিল-মিটিংয়ে আপত্তি নেই, মানুষের ওপর হামলায় সহ্য করবো না ‘যারা গ্রেনেড দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা? যারা উন্নয়ন দেখে না, তারা চাইলে চোখের ডাক্তার দেখাতে পারে- প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত আ.লীগ স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধুর খুনিকে লালন-পালন করছে: প্রধানমন্ত্রী সচিব সভায় ১০ নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী ব্যাংকে টাকা না থাকার গুজবে চোরেরা সুযোগ নেবে: প্রধানমন্ত্রী ‘রিজার্ভ নিয়ে সমস্যা নেই, সব ব্যাংকে টাকা আছে’ ‘যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেবো, ওয়াদা দেন নৌকায় ভোট দেবেন’ রক্ত ও হত্যা ছাড়া বিএনপি কিছু দিতে পারেনি : প্রধানমন্ত্রী বিমানবাহিনী এখন অনেক বেশি শক্তিশালী, আধুনিক ও চৌকস: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অর্থনীতি এখনও গতিশীল, নিরাপদ: প্রধানমন্ত্রী যশোরে বিমান বাহিনীর কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রী আমাদের ছেলে-মেয়েরা একদিন বিশ্বকাপ খেলবে: প্রধানমন্ত্রী

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ ধরায় ভোলায় ১২ জেলে আটক

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৯ অক্টোবর ২০২১  

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মা ইলিশ ধরায় ১২ জেলেকে আটক করেছে মৎস্য বিভাগ। তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন হারে জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার(১৮ অক্টোবর) সকাল থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত ভোলা সদর উপজেলার মেঘনা-তেতুলিয়া  নদীতে মাছ ধরার সময় উপজেলা মৎস্য বিভাগ তাদের আটক করে। আটককৃতরা হলেন,মো.কবির মোল্লা, আল-আমীন,মো.আকতার,মো.ইব্রাহিম,মো.লোকমান, মো. দেলোয়ার, মো.সুৃমন, মো.রাজিব, মো.রিয়াজ, মো.আল-আমীন, মো.নিয়াজ, মো.আলামীন।

সদর উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত সদর উপজেলার মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীতে অভিযান পরিচালনা করে উপজেলা মৎস্য বিভাগ তাদের আটক করে। এ সময় তাদের কাছে সাড়ে ৫ হাজার মিটার অবৈধ জাল, ১৫ কেজি ইলিশ মাছ জব্দ করে।

এ সময় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মিজানুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আটক  জেলেদের বিভিন্ন হারে জরিমানা করেন।  এবং মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। এবং জব্দকৃত জাল ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতে পুড়িয়ে ফেলা হয়। জব্দকৃত ইলিশ স্থানীয় এতিম ও গরিবদের মাঝে বিতরণ করা হয়ে।

এ সময় সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. জামাল হোসাইন জানান, নদীতে মাছ শিকারের উপর সরকারের নিষেধাজ্ঞা জারির পরপরই জেলা মৎস্য বিভাগের নির্দেশক্রমে আমরা  উপজেলা মৎস্য বিভাগ উপজেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে ভোলার মেঘনা তেতুলিয়া অভিযান পরিচালনা করে আসছি। তারি ধারাবাহিকতায় আজ মেঘনা নদী থেকে ৬ জন ও তেতুলিয়া নদী থেকে ৬ জন জেলেকে মাছ ও জাল সহ আটক করা হয়েছে। তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে আমাদের এই অভিযান চলমান থাকবে।আগামীতে কেউ এরকম অপরাধ করলে তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। কোনভাবেই অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা যদি মা ইলিশ রক্ষা করতে পারি, তবে সারা বছর ইলিশ খেতে পারবো তাই এই অভিযানকে বাস্তবায়ন করতে আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।