• রোববার   ২২ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রূপপুর মেটাবে বিদ্যুতের চাহিদা, দেবে লাভও দ্রব্যমূল্য নিয়ে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ দফা প্রস্তাব অবিলম্বে বৈশ্বিক সরবরাহ চেইন স্বাভাবিক করার আহ্বান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিবেশবান্ধব: প্রধানমন্ত্রী খালেদাকে পদ্মায় ফেলতে আর ইউনূসকে চুবিয়ে তুলতে বললেন শেখ হাসিনা কক্সবাজার হবে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের রিফুয়েলিং পয়েন্ট কক্সবাজারে যত্রতত্র স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে কউক’র নতুন ভবনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর টোল নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি আওয়ামী লীগ সরকার আছে বলেই সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে- প্রধানমন্ত্রী ওপেনিংয়ে চতুর্থ সেরা জুটি গড়ে ফিরলেন জয়, তামিমের সেঞ্চুরি নিত্যপণ্যের দাম কেন চড়া, জানালেন প্রধানমন্ত্রী স্বদেশ প্রত্যাবর্তন: শেখ হাসিনা দেশের মানুষের শেষ ভরসাস্থল শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির নিরাপদ আশ্রয়স্থল শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ইতিহাসে মাইলফলক: রাষ্ট্রপতি চার দশকেরও বেশি সময় শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে আ.লীগ উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি খাদ্য সাশ্রয় করুন: প্রধানমন্ত্রী সবাই স্বাধীনভাবে সরকারের সমালোচনা করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী টাকা অপচয় করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী

তজুমদ্দিনে ১৫০ পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বাড়ি হস্তান্তর

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২  

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলায় মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে শম্ভুপুর ও চাঁদপুর ইউনিয়নের  ১৫০ টি ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও বাড়ি হস্তান্তর করা হয়েছে। শুক্রবার তজুমদ্দিন উপজেলার ডাকবাংলো প্রাঙ্গণে সকালে  ভোলা-৩ আসনের এমপি নুরনবী চৌধুরী শাওন প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের মাঝে জমি ও বাড়ি হস্তান্তর করেন।

পরে লালমোহন ও  তজুমদ্দিন উপজেলায়  ৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ২টি নব নির্মিত ডাকবাংলোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।  এসময় উপস্থিত ছিলেন  ভোলা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু,তজুমদ্দিন  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মরিয়ম বেগম,সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ফখরুল আলম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক দেওয়ানসহ আরও অনেক।

এসময় প্রধান অতিথির ভাষনে এমপি নুরনবী চৌধুরী শাওন তিনি  বলেন , মুজিববর্ষে ‘বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’-প্রধানমন্ত্রীর এমন সিদ্ধান্তের আলোকে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি এবং গৃহ প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। একসঙ্গে এত মানুষকে জমির মালিকানাসহ সেমিপাকা ঘর দেয়া পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা। এটি অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে শেখ হাসিনা মডেল।’ তিনি মনে করেন, আশ্রয়ণে ছিন্নমূল বিশাল সংখ্যক জনগোষ্ঠী স্থায়ী আবাসনের পাশাপাশি আত্মকর্মসংস্থানেরও সুযোগ পাচ্ছে। এতে দারিদ্র্য বিমোচন ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে যাচ্ছে।