• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২০ ১৪২৯

  • || ১০ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে হিসাব করে চলার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী ২০২২-২৩ অর্থবছরে ১০ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ভাষা-সাহিত্য চর্চাও ডিজিটাল করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ মানহীন শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে: রাষ্ট্রপতি গণতান্ত্রিক ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে চায় এক শ্রেণির বুদ্ধিজীবী মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ

লালমোহন-কালাইয়া নৌ-রুটে ফেরিঘাট স্থাপনের জন্য পরিদর্শন করেন বিআইডব্লিউটিসি’র চেয়ারম্যান

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২০ আগস্ট ২০২২  

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার লালমোহন নাজিরপুর থেকে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালাইয়া নৌ-রুটে ফেরি সার্ভিস স্থাপনের জন্য দুই পাড় পরিদর্শন করলেন বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান আহমদ শামীম আল রাজী। তেঁতুলিয়া নদীর এই পথে একটি ফেরি সার্ভিস চালুর দাবী দুই জেলার বাসিন্ধাদের। তারই প্রেক্ষিতে শুক্রবার (১৯ আগষ্ট) সকালে প্রথমে ভোলার লালমোহন উপজেলার নাজিরপুর ঘাট ও পরে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালাইয়া ঘাট পরিদর্শন করেন তিনি।

উপকূলীয় এলাকায় জলপরিবহন বিস্তৃত করার লক্ষ্য নিয়ে নাজিরপুর ও কালাইয়া ঘাট পরিদর্শন করেন বলে জানান বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান আহমদ শামীম আল রাজী। এসময় তিনি নদীপথ বৃদ্ধির কার্যক্রম এর অংশ হিসেবে এই রুটে ফেরি সার্ভিস চালু করার জন্য দ্রুত সমীক্ষার মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান।

ফেরিঘাট এর দুইপাশের অবস্থানসহ নদীর নাব্যতা অনুযায়ী ফেরি চলাচলের উপযোগী করতে ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা বলেন তিনি। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে ফেরি চলাচল কার্যক্রম শুরু হবে বলে আশ^াস দেন বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান।

উল্লেখ্য, এই নৌ-পথ দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ পটুয়াখালী থেকে ভোলা হয়ে লক্ষ্মীপুর ও চট্টগ্রাম যাতায়াত করে। একই সাথে এই পথ দিয়ে ভোলার দক্ষিণাঞ্চলেল প্রায় ১০ লাখ মানুষ বাউফল হয়ে খুব সহজেই পদ্মা সেতু পাড়ি দিয়ে ঢাকা যাতায়াত করতে পারবে। কিন্তু তেঁতুলিয়া নদীতে ফেরি না থাকায় এসব যাত্রীরা ছোট ছোট লঞ্চে যাতায়াত করে থাকে। এই রুটে একটি ফেরি সার্ভিস চালু হলে দুই জেলার মানুষ খুব সহজেই যানবাহন নিয়ে চলাচল করতে পারবে বলে জানান যাত্রীরা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (বানিজ্য)  এস এম অশিকুজ্জামান,ক্যাপ্টেন হাসেমুর রহমান চৌধুরী,  ভোলা বিআইডব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক (বানিজ্য) পারভেজ খান প্রমুখ।