• মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪৩১

  • || ১০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে বাংলাদেশ ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করতে আগ্রহী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বিনিময় অ্যাক্রেডিটেশন দেশের অর্থনীতিকে সুদৃঢ় করতে সহায়তা করে: রাষ্ট্রপতি

উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে বিএনপি থেকে বহিষ্কার হলেন যারা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৬ মে ২০২৪  

দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে আগামী ২৯ মে অনুষ্ঠেয় ৩য় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ায় ৫১ জনকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ১৭ জন, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ২৫ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন ৯ জন। বুধবার (১৫ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানান বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিবৃতিতে রিজভী বলেন, তৃতীয় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির যে সব নেতারা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তাদেরকে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হলো।
 
রংপুর বিভাগ থেকে বহিষ্কৃতরা হলেন-দিনাজপুর জেলার খানাসামা উপজেলা বিএনপির সদস্য এ টি এম সুজাউদ্দীন লুহিন শাহ ও মসহুদ চৌধুরী, চিরিরবন্দর উপজেলা বিএনপির সদস্য মো. মোকাররম হোসেন, রংপুর জেলা বিএনপির সদস্য মো. মোকাররম হোসেন সুজন, গঙ্গাচরা উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুজ্জামান প্রামানিক লিপ্টন, সদর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. কাইয়ুম জাদু, কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গমারী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহীন সিকদার, নাগেশ্বরী উপজেলার সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মেহেদী হাসান, নারী দলের সভাপতি আমেনা খাতুন, সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌসি বেগম, কুড়িগ্রাম জেলার পীরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সদস্য সুকুমার রায়, গাইবান্ধা সাদুল্লাপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সদস্য মো. সাইদুর রহমান মুন্সি।

রাজশাহী বিভাগের বহিষ্কৃতরা হলেন-একরামুল বারী রঞ্জু, রোকসানা আক্তার, হুমায়ুন কবির এবং মাহফুজা বেগম।

খুলনা বিভাগের বহিষ্কৃতরা হলেন-শেখ আব্দুর রশিদ, মো. মনিবুর রহমান, গাজী আব্দুল হাকিম এবং শেখ শাহিনুর রহমান।

বরিশাল বিভাগের বহিষ্কৃতরা হলেন- আশরাফ আলী হাওলাদার, হাসিনা হাবিব, মো. মিজানুর রহমান, মাঈনুল ইসলাম রুবেল ও তরিকুল ইসলাম।

ঢাকা বিভাগে বহিষ্কৃতরা হলেন- উষ্ণা আক্তার, মোস্তফা গোলাম, মো. মুক্তার হোসেন এবং রাসেল মুন্সি।

ময়মনসিংহ বিভাগের বহিষ্কৃতরা হলেন- মাজহারুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন বাদশা, কবির হোসেন, শেফালী হামিদ, মাসুদ মিয়া, শেখ বদরুল ইসলাম, এম এ সোহাগ, মোস্তাফিজুর রহমান রনি ও মনোয়ারা বেগম।

সিলেট বিভাগের বহিষ্কৃতরা হলেন- ইজাজুল হক রনি, আরিফুল ইসলাম জুয়েল, সেবু আক্তার মনি, মহিবুল ইসলাম শাহীন, মাহবুবুর রহমান, আফজাল আলী রুস্তম এবং চৌধুরী নিয়াজ মাহমুদ লিংকন।

কুমিল্লা থেকে বহিষ্কৃতরা হলেন-সেলিম পারভেজ, জহিরুল হক সরকার মিঠুন, মো. অপু গোলাম কিবরিয়া, আকরামুল ইসলাম এবং তাহমিনা হক পপি। চট্টগ্রাম বিভাগের বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা হলেন- তাহেরা আক্তার মিলি।

এর আগে শনিবার (৪ মে) বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়ায় ৬১ নেতাকে বহিষ্কার করল বিএনপি। ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২১ মে দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে বিএনপির যেসব নেতা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ ও নারী) পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, তাদের দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির প্রাথমিক সদস্যপদসহ সব পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হলো। বহিষ্কার হওয়া ৬১ জনের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২০ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৬ জন লড়ছেন।