• সোমবার   ০২ আগস্ট ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
‘বঙ্গবন্ধু হত্যায় ষড়যন্ত্রকারী কারা, ঠিকই আবিষ্কার হবে’ ‘বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পৃষ্ঠপোষকতায় এগিয়ে খালেদা জিয়া’ দেশের নাম বদলে দিতে চেয়েছিল পঁচাত্তরের খুনি চক্র: প্রধানমন্ত্রী এক সময় নিজেই রক্তদান করতাম: প্রধানমন্ত্রী হত্যার বিচার করেছি, ষড়যন্ত্রের পেছনে কারা এখনও আবিষ্কার হয়নি শোকের মাস আগস্ট শুরু একনেক বৈঠক শুরু, অনুমোদন হতে পারে ১০ প্রকল্প করোনা টেস্টে গ্রামীণ জনগণের ভীতি নিরসনে কাজ করতে হবে জয়ের কাছ থেকেই আমি কম্পিউটার শিখেছি : প্রধানমন্ত্রী মানুষকে ব্যাপকভাবে ভ্যাকসিন দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদন হবে দেশেই: শেখ হাসিনা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন আজ করোনা মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীসহ সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক সুশৃঙ্খল সেনাবাহিনী গণতন্ত্র সুসংহত করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ নভেম্বরে এসএসসি, ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী নিম্নআয়ের মানুষের জন্য ৩২০০ কোটি টাকার প্রণোদনা ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট মানতে হবে যেসব বিধিনিষেধ কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল করে প্রজ্ঞাপন জারি

বিএনপির অধিকাংশরাই এখন ঘুমন্ত

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০২১  

৫০২ সদস্যের কেন্দ্রীয় ‘ঢাউস’ কমিটি। অথচ কর্মকাণ্ডে নেই তার ছিটেফোঁটা প্রতিফলন। হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়া বিএনপির অধিকাংশরাই যেন এখন ঘুমন্ত। এভাবে চললে আর অল্প কিছুদিনের মধ্যেই বিএনপি যাদুঘরের রাজনৈতিক দলে পরিণত হবেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

তাদের ভাষ্য, দল টিকে থাকে সাংগঠনিক কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে। কিন্তু বিএনপির বেলায় তা সিকিভাগও পরিলক্ষিত হচ্ছে না। তাই নির্দ্বিধায় বলা যায়, দলটির অনাগত ভবিষ্যৎ ঘোর অন্ধকারে নিমজ্জিত।

নির্ভরযোগ্য সূত্রের তথ্যমতে, দীর্ঘদিন ধরে কেন্দ্রীয় কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও পরবর্তী জাতীয় কাউন্সিল নিয়ে ‘মাথা ব্যথা’ নেই বিএনপির। উল্টো দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া অসুস্থ, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডনে, করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবসহ নানা খোঁড়া যুক্তি দেখাচ্ছেন দলটির নেতাকর্মীরা।

তারা বলছেন, এই মুহূর্তে কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত নেয়াটা কঠিন। তারপরও চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তারেক রহমানের ‘গ্রিন সিগন্যাল’ পেলেই তারা কাজ শুরু করে দেবেন।

কাউন্সিল না করায় দলেরই ক্ষতি হচ্ছে মন্তব্য করে বিএনপির একাধিক জ্যেষ্ঠ নেতা বলছেন, এ কারণে যে দল কতটা পিছিয়ে পড়ছে, জন-বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে তা কারও ধারণাতেও নেই। এমনকি এ নিয়ে তেমন কোন আলোচনাও হয় না বলতে গেলে। যদি কখনো কেউ মিটিংয়ে এ নিয়ে কথা তোলেন, সেটির প্রসঙ্গ ঘুরিয়ে অন্যদিকে মোড় দেয়া হয়।

ক্ষোভ প্রকাশ করে তারা বলেন, কাউন্সিল না হওয়ার ফলে নতুন নেতৃত্ব তৈরি হচ্ছে না। বিগত দিনের ত্যাগী ও যোগ্যদেরও যথাযথ মূল্যায়ন হচ্ছে না। তাই অবিলম্বে কাউন্সিল হওয়া উচিত। তাহলে অন্তত আর কিছু না হোক, ঘুমন্ত অবস্থাটা কেটে গিয়ে দলে একটা গতি আসবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির দায়িত্বশীল এক নেতা জানান, নানা অজুহাতে বিএনপির অধিকাংশ নেতাকর্মীই এখন দলীয় রাজনীতি থেকে দূরে। ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ব্যবসা-বাণিজ্য ও পরিবার-পরিজন নিয়ে। আবার কেউ কেউ তারেকের স্বৈরতন্ত্রে অতিষ্ঠ হয়ে নিষ্ক্রিয় বা গা-ঢাকা দিয়ে রয়েছেন। এমনকি বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটি নিয়মিত ভার্চুয়াল বৈঠক করলেও বাস্তবে রাখতে পারছে না তেমন কোন কার্যকর ভূমিকা। 

তিনি বলেন, ১৯ সদস্যের এ কমিটির পাঁচটি পদ শূন্য। শারীরিক অসুস্থতাসহ নানা কারণে চারজন সব সময়ই থাকেন অনুপস্থিত। সবমিলিয়ে বিরাজ করছে, হ-য-ব-র-ল একটা অবস্থা।