• বৃহস্পতিবার   ২৮ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১২ ১৪২৮

  • || ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর জাতীয় প্রয়োজনে সেনাবাহিনী সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত থাকবে ‘বাঙালির পিতার নাম শেখ মুজিবুর’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন বেসরকারি খাতে উদ্যোক্তা তৈরিতে প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ বাংলাদেশ হবে প্রাচ্য-পাশ্চাত্যের সেতু, এখানে বিনিয়োগ করুন বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ: শেখ হাসিনা দেশের ভাবমূর্তি নষ্টকারীদের বিষয়ে সচেতন হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী মাঝে মধ্যে কিছু ঘটিয়ে দেশের ভাবমূর্তি নষ্টের অপচেষ্টা হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন পায়রা সেতুতে হাঁটতে পারলে ভালো লাগতো: প্রধানমন্ত্রী সিলেট-ঢাকা চার লেনের নির্মাণকাজের উদ্বোধন বাংলাদেশকে কেউ আর পিছিয়ে রাখতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী স্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন পায়রা সেতুর উদ্বোধন আজ, দক্ষিণাঞ্চলের আরেকটি স্বপ্নপূরণ নেতাকর্মীদের নজরদারি বাড়াতে বললেন শেখ হাসিনা কুমিল্লার ঘটনা দুঃখজনক, অপরাধীর বিচার হবে: প্রধানমন্ত্রী ‘দেশের সবচেয়ে বড় রপ্তানি পণ্য হবে ডিজিটাল ডিভাইস’ সরকারের ধারাবাহিকতা আছে বলেই উন্নয়ন সম্ভব হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী বিদেশে বিনিয়োগের প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী পূর্বাচলে প্রদর্শনীকেন্দ্র উদ্বোধন করবেন আজ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে কঠোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

খালেদাকে বিদেশে পাঠাতে ফের মরিয়া বিএনপি, যা রয়েছে নেপথ্যে

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০২১  

দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার নামে বিদেশে পাঠাতে আবারো তৎপর হয়ে উঠেছেন দলের শীর্ষ নেতারা। বিনা কারণে কয়েকদিন পরপরই দল ও পরিবারের পক্ষ থেকে এ ধরনের অপতৎরতা চালানো হয়।

এই তো কিছুদিন আগেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন। সে সময়েও বিনা অজুহাতে খালেদাকে বিদেশে পাঠাতে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন বিএনপি নেতারা। তাদের খোঁড়া যুক্তি ছিল, দেশে খালেদার ভালো চিকিৎসা হবে না। কিন্তু পরে সু-চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন খালেদা জিয়া। 

সেই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর দাবি তুলছেন বিএনপির নেতারা। এর মধ্যেই মঙ্গলবার তাকে আবারো এভারকেয়ার হাসপাতালে অহেতুক ভর্তি করা হয়েছে। 

আর এ ঘটনা নিয়ে জনমনে ও রাজনৈতিক অঙ্গনে শুরু হয়েছে বিস্তর আলোচনা-সমালোচনা। অনেকের মনেই প্রশ্নের উদ্রেক হয়েছে যে, খলেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠাতে বারবার কেন এতো উতলা হয়ে উঠছেন বিএনপির নেতারা?

এসব প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত, দীর্ঘ সময় ধরে রাষ্ট্র ক্ষমতায় নেই বিএনপি। আন্দোলনের নামে সন্ত্রাস, জ্বালাও-পোড়াওয়ের মতো নানা কুকর্মের ফলে এরই মধ্যে দেশে জনগণের মধ্যে গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে বিএনপি। এ দলটি বর্তমানে সন্ত্রাসীদের দল হিসেবেই চেনে দেশের জনগণ।

তারা আরো বলেন, পরপর তিনটি জাতীয় নির্বাচনে হেরে দলের নেতারা হতাশ। এর মধ্যে দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা হওয়ায় তিনি রাজনীতি করতে পারছেন না। লন্ডনে থেকে দল পরিচালনা করছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তিনিও দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি। দেশে আসলে গ্রেফতার হবেন, সেই ভয়ে লন্ডন থেকেই দল পরিচালনা করেন তিনি।

বিএনপির দলীয় সূত্র জানায়, দেশে আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনের বাগাড়ম্বর করলেও বিএনপির যে সেই সামর্থ্য নেই সেটা দলের নেতারাও স্বীকার করেন। ফলে বিদেশের সহায়তায় দেশে ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছে বিএনপি। 

বিএনপির শীর্ষ নেতাদের ধারনা, পলাতক দণ্ডপ্রাপ্ত তারেকের ভাবমূর্তি বিলীন হলেও খালেদা জিয়ার হয়তো কিছু অবশিষ্ট রয়েছে। বয়োজ্যেষ্ঠ খালেদা জিয়ে বিদেশে গেলে অন্তত কিছু দেশের অনুকম্পা আদায় করতে পারবেন। এমন দিবাস্বপ্নেই খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠাতে উঠেপড়ে লেগেছেন তারা।

এদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা আরো বলেন, বিএনপিকে বুঝতে হবে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে বিদেশে পাঠানোর উপায় নেই। তাকে দেশে থেকেই চিকিৎসা নিতে হবে। সুতরাং বিএনপির যদি খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর মাধ্যমে ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখে থাকে, তাহলে সেটি তাদের স্বপ্নই থেকে যাবে।