• বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৫ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে

শেখ হাসিনাকে হত্যার মিশনে নেমেছে বিএনপি: কাদের

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২৩  

রাজশাহীর এক বিএনপি নেতার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার হুমকির’ প্রতিবাদে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করার হুমকি দিয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। তবে ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘সামনে নির্বাচন, আমরা সংঘাত চাই না। কথায় কথায় আপনারা মাথা গরম করবেন না।’

মঙ্গলবার (২৩ মে) বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এই সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। রাজশাহী জেলা শাখা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার হুমকির’ প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করা হয়।

সমাবেশে আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, রাজশাহী বিএনপি নেতা এই হুমকি দিয়েছে বলে সবাই বলছে। রাজশাহীর নেতার শেখ হাসিনাকে হত্যার চিন্তা থাকতে পারে না। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা খুনি জিয়াউর রহমান হত্যার মাধ্যমে রাজনীতি শুরু করেছেন। সেই বিএনপির শীর্ষ নেতাদের নির্দেশে এই বক্তব্য এসেছে।

হানিফ আরও বলেন, এর মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হয়েছে বিএনপি শান্তি চায় না। বিএনপি আবারও অগ্নিসন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের পথে হাঁটবে। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির মাধ্যমে শেখ হাসিনা সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায়। আমরা এসব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে বঙ্গবন্ধুকন্যাকে ক্ষমতায় রাখবো।

আওয়ামী লীগকে হুমকি দিয়ে লাভ নেই জানিয়ে হানিফ বলেন, সন্ত্রাসী-জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করতে চাইলে পরিণাম ভালো হবে না। আর একবার হত্যা-হুমকি তো দূরের কথা, এ রকম কোনও কথা বললে আওয়ামী লীগের সারা দেশের নেতারা রাজপথে উঠতে দেবে না। রাজপথ থেকে ঘরে ঢুকিয়ে দেবে।

দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে উত্তাল সারা দেশ। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যে হুমকি দেওয়া হয়েছে, এটা বিএনপি নেতা চাঁদের একার কথা না, এটা খালেদা জিয়া, তারেক রহমানের কথা। এই হুমকি ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। তাদের লক্ষ্য একটাই, শেখ হাসিনাকে হত্যা করা।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, আমাদের শুধু প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ করলে চলবে না। সর্বশক্তি দিয়ে এদের নিশ্চিহ্ন করতে হবে। আমাদের ঐক্যের প্রতীক শেখ হাসিনাকে আঘাত করার আগে তাদের নিশ্চিহ্ন করতে হবে। শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত আমারা তাদের মোকাবিলা করবো, বিএনপির অস্তিত্ব থাকতে দেবো না।

নাছিম আরও বলেন, বিএনপি খুনির দল, খুন-হত্যায় মত্ত হয়ে উঠছে তারা। দেশের আশা-আকাঙ্ক্ষার বাতিঘর, আমাদের ঐক্যের প্রতীক শেখ হাসিনাকে যারা হত্যা করতে চায়, তাদের শেষ করে দিতে হবে। এরা যদি সুযোগ পায়, শুধু বঙ্গবন্ধুকন্যা নয়, জাতির পিতার আদর্শের কাউকে বেঁচে থাকতে দেবে না। এরা খুনির দল।

কিন্তু সংঘাত কেউ করতে এলে আমরা চুপ করে বসে থাকবো? (ছবি: ফোকাস বাংলা)

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী বলেন, আমরা প্রস্তুত। আমরা যখন ধরবো আর ছাড়বো না। বিএনপিকে যখন প্রতিহত করতে বলবো, তাদের আস্তানা ছিন্নভিন্ন করে দিতে হবে। বেশি দিন তাদের আন্দোলনের সুযোগ দেবো না। দলের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হলে তাদের রাজনীতি ধ্বংস করে দিতে হবে।

সমাবেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম বলেন, সারা দেশে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। আগামী নির্বাচনের আগে তাদের মাঠ থেকে বিতাড়িত করবো।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, সামনে নির্বাচন। তারা (বিএনপি) নির্বাচন চায় না। তারা চায় সংঘাত, অস্থিরতা, অশান্তি ও রক্তপাত। আর আমরা চাই নির্বাচন, বাংলাদেশের জনকণ্ঠকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে। আমরা নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। আমরা কারও সঙ্গে পাল্টাপাল্টি সংঘাতে যাবো না। আমরা রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করবো এই অপশক্তিকে। এই অপশক্তিকে বাংলার জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলতে হবে। আমরা ভুল থেকে শিক্ষা নেবো, এই আশ্বাস জনগণকে দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কাতারের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার আগে নেত্রী বলে গেছেন, কোনও সংঘাতে যাওয়া যাবে না। আমরা সংঘাতে যাবো না, কিন্তু সংঘাত কেউ করতে এলে আমরা চুপ করে বসে থাকবো? আমাদের ওপর যদি কেউ হামলা চালায়, তাহলে আমরা হামলা চালাবো না? হামলা করলে তার সমুচিত জবাব কীভাবে দিতে হয়, তা আওয়ামী লীগ জানে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, কথায় কথায় আপনারা মাথা গরম করবেন না। ঠান্ডা মাথায় এই অপশক্তিকে বাংলাদেশের জনগণ রাজনীতি থেকে বিচ্ছিন্ন করবে। যদি কেউ নির্বাচন প্রতিরোধ করতে আসে, আমরা সর্বশক্তি দিয়ে জনগণকে নিয়ে তাদের প্রতিরোধ করবো।