• শুক্রবার   ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২১ ১৪২৯

  • || ১১ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে হিসাব করে চলার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী ২০২২-২৩ অর্থবছরে ১০ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ভাষা-সাহিত্য চর্চাও ডিজিটাল করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ মানহীন শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে: রাষ্ট্রপতি গণতান্ত্রিক ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে চায় এক শ্রেণির বুদ্ধিজীবী মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ

তামাকমুক্ত দেশ গঠনে একযোগে কাজ করতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শামসুল

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২২  

২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। তিনি বলেন, সবার সম্মিলিত উদ্যোগ দেশকে তামাকমুক্ত করতে সহায়তা করবে। এজন্য সরকার আইন সংশোধনে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিয়েছে।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) মিরপুরের হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের সেমিনার কক্ষে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গঠনের চ্যালেঞ্জ ও করণীয় শীর্ষক এক সেমিনারে এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ও জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন একই সংস্থার মহাসচিব অধ্যাপক খন্দকার আব্দুল আওয়াল রিজভী।

তামাক নিয়ন্ত্রণের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের রোগতত্ত্ব ও গবেষণা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক সোহেল রেজা চৌধুরী। তিনি বলেন, ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে আইনের পরিবর্তন আনতে হবে। এছাড়া তামাক কোম্পানিগুলোর সিএসআর কার্যক্রম একবারে বন্ধ করতে আইন প্রণয়ন করতে হবে।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গর্ভনর ড. আতিউর রহমান ও স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগম।

এর আগে তামাক নিয়ন্ত্রণে কাজ করেন এমন ১৫টি সংস্থা তাদের কার্যক্রম উপস্থাপন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়ক অতিরিক্ত সচিব হোসাইন খন্দকার, বাংলাদেশ ল্যাং ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক আসিফ মুজতুবা মাহমুদ, অ্যাসোসিয়েশন অব ফিজিশিয়ানস অব বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যাপক সোহাইল মাহমুদ আরাফাত ও ঢাকা আহছানিয়া মিশনের হেলথ এবং ওয়াশ সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদ।