• বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে বাংলাদেশ ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করতে আগ্রহী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বিনিময় অ্যাক্রেডিটেশন দেশের অর্থনীতিকে সুদৃঢ় করতে সহায়তা করে: রাষ্ট্রপতি

ধর্মান্তরিত করে স্ত্রীর মর্যাদা না দেয়ায় কারাগারে স্বামী

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৯ এপ্রিল ২০২৪  

বরিশালে চম্পা রানী নামের এক তরুণীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ের পর স্ত্রীর মর্যাদা না দেওয়ায় প্রতারণা ও যৌতুকের মামলায় স্বামীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। রোববার বরিশাল বিজ্ঞ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে বিচারক তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়ে দেন।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারি রাজিব মজুমদার। এর আগে ২০২৪ সালের ৩ মার্চ বরিশাল আদালতে মামলা দায়ের করেন ভূক্তভোগী চম্পা বেগম। অভিযুক্ত স্বামী হেলাল উদ্দিন ফারুক নগরীর হাসপাতাল রোডের বাসিন্দা। তিনি বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নের বুখাইনগর গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে।

মামলার বরাতে বেঞ্চ সহকারী রাজিব বলেন, চম্পা রানীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্মান্তরিত করে ২০২৩ সালের ৮ অক্টোবর বিয়ে করে ফারুক। এরপর চম্পা রানীর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় চম্পা বেগম। এর কিছু দিন পর চম্পা বুঝতে পারেন যে তিনি প্রতারণার ফাঁদে পরেছে। বিয়ের পর থেকেই ভরণপোষণ কিংবা স্ত্রী মর্যাদা না দিয়ে উল্টো যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে আসছিলো ফারুক।

স্বামী ফারুকের নির্যাতন সইতে না পেরে আদালতে মামলা দায়ের করেন চম্পা। সেই মামলায় রোববার আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে বিচারক তা নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।