• শুক্রবার   ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২১ ১৪২৯

  • || ১১ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে হিসাব করে চলার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী ২০২২-২৩ অর্থবছরে ১০ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ভাষা-সাহিত্য চর্চাও ডিজিটাল করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ মানহীন শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে: রাষ্ট্রপতি গণতান্ত্রিক ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে চায় এক শ্রেণির বুদ্ধিজীবী মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ

উদ্বোধনের পরদিনই মেট্রোরেলে চড়তে পারবেন যাত্রীরা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৩ ডিসেম্বর ২০২২  

দেশের গণপরিবহনে প্রথমবারের মতো সংযুক্ত হতে যাওয়া মেট্রোরেলের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে এ মাসেই। দুটি স্টেশন ও ট্রেনের সিস্টেম ইন্টিগ্রেশনের কাজ চলমান থাকায় অনেকের মনে প্রশ্ন—এ মাসে মেট্রোরেল উদ্বোধন হলেও এতে চড়তে পারবেন কিনা।

এ বিষয়ে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক জানিয়েছেন, উদ্বোধনের পরদিনই যাত্রী সাধারণ মেট্রোরেলে চলাচল করতে পারবেন।

তিনি বলেন, ‘উদ্বোধনের পরের দিনই মানুষ মেট্রোরেলে চড়তে পারবে। নতুন কোনও দেশে এমআরটি চালু হলে সেখানে যেভাবে যাত্রী পরিবহন করা হয়—আমরা সেভাবেই করবো।’

তিনি জানান, প্রথমদিকে প্রতিটি ট্রেনের সক্ষমতার চেয়ে কম সংখ্যক যাত্রী নিয়ে মেট্রো চলবে, পরে ধীরে ধীরে তা বাড়ানো হবে।

এমএএন ছিদ্দিক বলেন, ‘ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে উদ্বোধনের জন্য আমরা সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়ে রেখেছি। আমরা এখনও এর কোনও ফিডব্যাক পাইনি।’

কাজীপাড়া ও শ্যাওড়াপাড়া দুটি মেট্রো স্টেশনের চলমান কাজের অগ্রগতি নিয়ে তিনি জানিয়েছেন—এই দুটি স্টেশনের কিছু কাজ এবং আগারগাঁও স্টেশনের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ বাকি আছে।


তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের শ্যাওড়াপাড়া স্টেশনে কিছু সমস্যা রয়েছে। সেখানে চ্যালেঞ্জ হলো—চারটি প্রবেশ-প্রস্থানের লিফট ও সিঁড়ি এবং দুটি লিফট ও দুটি এস্কেলেটর সংক্রান্ত। একটা এস্কেলেটরের স্পেস নিয়ে সমস্যা হচ্ছে। আমরা জমি অধিগ্রহণ করেছি। কিন্তু জমির মালিক বলছেন—টাকা হাতে না পাওয়া পর্যন্ত তিনি জায়গার দখল ছাড়বেন না। আমরা তাকে বুঝানোর পর দু-তিন দিন হলো তিনি জায়গার দখল ছেড়েছেন। আমরা এ কাজটা ১৫ দিনের মধ্যে শেষ করে দিবো।’

ট্রেন এখন জাপানি চালকরাই চালাচ্ছেন, বাংলাদেশি চালকরা কবে চালাবে—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা ট্রেনগুলো একটা পর্যায়ে বুঝে নেবো। বুঝে নেওয়ার পর আমরা পরিপূর্ণভাবে চালাবো। এখন আমাদের সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন টেস্ট। এটি শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমরা বুঝে নেবো না। এখন ব্ল্যাংক অপারেশন চলছে। আমাদের চালকরা এখন জাপানিদের থেকে শিখছে। এ মাসের (নভেম্বর) পরে আমাদের ছেলেরাই চালাবে।’

তিনি জানান, ৩০ নভেম্বর সবকিছু বুঝিয়ে দেওয়ার কথা ছিল। এটা হয়তো একটু দেরি হতে পারে।