• বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৫ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে

শুক্রাণু পেতে নারীদের প্রতিযোগিতায় নামতে বললেন ৬৩ শিশুর পিতা!

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২২ মার্চ ২০২৩  

মাত্র ৩১ বছর বয়সেই ৬৩ সন্তানের বাবা হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা কেইল জর্ডি। যুক্তরাষ্ট্রে কেইলের এই কীর্তিতে রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছে।

সম্প্রতি সমাজমাধ্যমে এসে কেইল বলেন, ‘আমার শুক্রাণু পাওয়ার জন্য নারীদের এ বার প্রতিদ্বন্দিতা করতে হবে। আমি শুক্রাণু দান করে রোজগার করি না। এই কাজ আমি বিনামূল্যে করি। তাই একাধিক নারী বিভিন্ন সময়ে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সবার নাকি আমার শুক্রাণু চাই! আমি এ বার একটি টিভি শো চালু করব। যেখানে আমার শুক্রাণু পেতে হলে নারীদের প্রতিযোগিতায় নামতে হবে।’

ইনস্টাগ্রামে কেইলের লক্ষ লক্ষ অনুরাগী। আর সেখানেই নারীরা তার কাছে শুক্রাণু দানের জন্য অনুরোধ করেন। নেটমাধ্যমে কেইল নিজেই জানিয়েছেন, শুক্রাণু দান করাই তার নেশা।

বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক থাকলেও কেইলের দাবি, মাঝেমধ্যেই অনলাইনে বিভিন্ন দেশ থেকে সন্তানধারণে ইচ্ছুক নারীরা যোগাযোগ করেন তার সঙ্গে। পৃথিবীর একাধিক দেশে শুক্রাণুদাতার পরিচয় গোপন রাখা হয়। তবে কেইল এই গোপনীয়তা খুব একটা পছন্দ করেন না। বরং যারা তার শুক্রাণু নিচ্ছেন, তাদের সঙ্গে আগে থেকে আলাপ করতে পছন্দ করেন।

কেইল বলেন, ‘আমার সঙ্গে এত নারী যোগাযোগ করেন যে, কাকে আমি শুক্রাণু দেব, তা আমি বুঝে উঠতে পারি না। তাই টিভি শোয়ে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তাদের বাছাই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি শুক্রাণু দিতে চাই বলে আমি কোনও নারীর সঙ্গে মিলন করি না, কেবল স্বমেহনের মাধ্যমেই শুক্রাণু সংগ্রহ করি। সেবাই আমার কাছে বড় ধর্ম। আমি এই কাজ তত দিন চালিয়ে যাব, যত দিন নারীদের আমার প্রয়োজন পড়বে। তবে এত নারীর আর্জি রাখা আমার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছে না।’

কেইলের দাবি, নিজের সব সন্তানকেই সমান ভালবাসেন তিনি।