• রোববার ২৬ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
ঢাকায় কোনো বস্তি থাকবে না, দিনমজুররাও ফ্ল্যাটে থাকবে অগ্নিসংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি বঙ্গবাজারে বিপণী বিতানসহ চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন নজরুলের বলিষ্ঠ লেখনী মানুষকে মুক্তি সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছে জোটের শরিক দলগুলোকে সংগঠিত ও জনপ্রিয় করতে নির্দেশ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে রেমাল বঙ্গবাজার বিপনী বিতানসহ ৪ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির

খালেদাকে পাকিস্তানি সৈন্যদের দেয়া সম্মানকে উদ্ধৃতি করে বিপাকে অলি

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৫ আগস্ট ২০১৯  

নতুন রাজনৈতিক জোট `জাতীয় মুক্তি মঞ্চ’ এর কান্ডারি লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ খালেদা জিয়াকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন। তিনি ১৯৭১ সালে খালেদা জিয়াকে পাকিস্তানি দোসরদের দেয়া সম্মানকে উদ্ধৃতি করে বলেছেন, পাকিস্তানি সেনারা খালেদা জিয়াকে যে সম্মান দিয়েছিলেন এই দেশে তিনি তাও পাচ্ছেন না।

শুক্রবার (২ আগস্ট) বিকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে এক সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানি সেনাদের প্রশংসা করে এলডিপি চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।

এদিকে, অলির এমন বক্তব্যকে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জন্য সম্মানহানীকর বক্তব্য বলে মনে করছেন বিএনপি নেতারা। কেননা, তৎকালীন প্রেক্ষাপটে খালেদা জিয়া একজন বাংলাদেশি হিসেবে তার সম্মান পাওয়ার কথা ছিলো না। বরং তার নির্যাতনের শিকার হওয়ার কথা। অনেকেই বলছেন, কর্নেল অলির এই বক্তব্য প্রমাণ করে যে- ১৯৭১ সালে খালেদা জিয়া তথা জিয়াউর রহমান পাকিস্তানিদের পক্ষের শক্তি হিসেবে কাজ করেছেন।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য বলেন, অলি আহমেদ বেগম জিয়ার বর্তমান অবস্থা উল্লেখ করতে গিয়ে যে ধরণের বক্তব্য দিয়েছেন তা দলের কোনো নেতারই বোধগম্য নয়। তিনি বেগম জিয়াকে সম্মান করতে গিয়ে তার সম্পর্কে যেসব বক্তব্য দিয়েছেন তাতে তার সম্মানহানি হয়েছে। কর্নেল অলির বক্তব্যের বিষয়ে জানার পর তারেক রহমান পর্যন্ত ক্ষিপ্ত হয়েছেন।

কর্নেল অলি আরও বলেছেন, স্বাধীনতাকামী মানুষের উপর নির্বিচার হত্যা ও ধর্ষণ চালানো পাকিস্তানি সেনাদের হাতে বন্দি হওয়ার পরও খালেদা জিয়া ‘সম্মান’ পেয়েছিলেন। তিনি পাকিস্তানিদের হাতে বন্দি ছিলেন। পাকিস্তানি সৈন্যরা অনেক কিছু করেছে। কিন্তু তাদের যে একটা কালচার, তাদের যে একটা স্ট্যান্ডার্ড সেটা তারা বিসর্জন দেয় নাই।

অলির এমন বক্তব্য নিয়েও রাজনৈতিক মহলে চলছে নানা সমালোচনা। রাজনীতি সচেতন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, পাকিস্তানিদের হাতে বন্দি থাকাকালীন সময়ে খালেদা জিয়াকে পাকিস্তানি সৈন্যরা কী করেছে- সে প্রসঙ্গ এনে তার অবস্থা বর্ণনা করা সত্যিই লজ্জাজনক। কর্নেল অলি ঠিক কী বলতে কী বোঝালেন তা বোধগম্য নয়।