• রোববার   ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৯

  • || ০৬ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র ২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় হবে ১২ হাজার ডলার: প্রধানমন্ত্রী টেক্কা দিয়ে বাংলাদেশের এগোনো অনেকের পছন্দ না: প্রধানমন্ত্রী জনগণের পয়সায় সুযোগ-সুবিধা, তাদের সেবা করুন বাবার পরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক হবেন মা- হাইকোর্টের রায় অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ২৫ নির্দেশনা জনগণের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে: ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী

আলোচনা হবে সংলাপের মাধ্যমে, লাঠি-পাথরে নয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০২২  

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, লাঠি কিংবা পাথরে নয়, সংবিধান, অন্যান্য আইন ও নির্বাচন কমিশনকে মেনে নিয়ে সংস্কার আন্দোলন করতে হবে। আলোচনা হতে হবে সংলাপের মাধ্যমে, সংলাপ অবভিয়াসলি লাঠি, পাথরে হবে না। কথাবার্তার মাধ্যমে হবে। লাঠি, পাথরে গেলে তো সংলাপের প্রয়োজন নেই।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর গুলশান ক্লাবে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অব বাংলাদেশ (আইবিএফবি) আয়োজিত ‘বাংলাদেশের শত বছরে আয়কর আইন: প্রত্যাশা এবং অর্জন শীর্ষক’ আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

সভায় বক্তারা শতবর্ষী কর আইনের বিভিন্ন সংকট, সমাধান নিয়ে বিভিন্ন বক্তব্য উপস্থাপন করেন। তবে পরিকল্পনামন্ত্রী মনে করেন, কর খাতে সংস্কারের প্রয়োজন।

তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সংস্কারের বিকল্প নেই। প্রতিটি ক্ষেত্রে সংস্কারের প্রয়োজন আছে। বড় সংস্কার আমরা করেছি স্বাধীনতাযুদ্ধের মাধ্যমে। নিজেদের জমি নিজের হাতে এনেছি। এখন অন্যান্য বিষয়ে সংস্কারের আবহ চলতে থাকবে, সেটা (নিয়ে) এই মুহূর্তে আমাদের কাজ চলছে। ডায়ালগ, আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সংস্কার করতে হবে।

আগামী নির্বাচন ইঙ্গিত করে মন্ত্রী বলেন, এই মুহূর্তে আরো বড় একটা সংস্কার নিয়ে দেশে... (আলোচনা) চলছে। ওখানেও তো ডায়ালগের মধ্যে (সমাধান) হওয়া উচিত। কর আইন সংস্কার করতে হলে যে আইনগুলো আছে সেগুলো হাতে নিয়ে ডায়ালগ কন্টিনিউ করতে হবে এবং কর আইন পরিবর্তন করতে হবে। এটাকে যদি ঢেলে ওখানে নিয়ে যাই, বড় জায়গায় যেখানে হট্টগোল চলছে, সেখানে আরেক ধরনের পরিবর্তন করতে হলে যে আইন আছে, সংবিধান, অন্যান্য আইন ও নির্বাচন কমিশন আছে, সেটাকে মেনে নিয়ে সংস্কার আন্দোলন করতে হবে।

রাজস্ব বিভাগ ও জনগণের মাঝে একটা দেওয়াল আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এসব ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা জরুরি, এটা প্রতিনিয়ত করতে হবে। সবখানেই আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যেতে হবে। আলোচনা হতে হবে সংলাপের মাধ্যমে, সংলাপ অবভিয়াসলি লাঠি, পাথরে হবে না। কথাবার্তার মাধ্যমে হবে। লাঠি, পাথরে গেলে তো সংলাপের প্রয়োজন নেই।

রাজস্ব খাতে দক্ষ লোক প্রয়োজন জানিয়ে এম এ মান্নান বলেন, এখানেও সংস্কার প্রয়োজন। জিওগ্রাফি পড়ে এসেছে, হিস্ট্রি পড়ে এসেছে, এখন ট্যাক্স সম্বন্ধে কথাবার্তা বলে। ট্রু, এখানে সমস্যা আছে। ঘা খেয়ে খেয়ে, হোঁচট খেয়ে শিখতে হয়ে। হোঁচট খেয়ে শুধু তার পা ভাঙে না, আরো অনেক লোকের পা ভাঙে। ওর নিজের পা ভাঙলে তো সমস্যা ছিল না, ওর ওখানে যারা যায়, প্রত্যেকের পা ভাঙে। এখানে প্রচুর সংস্কারের প্রয়োজন আছে। আমার ধারণা সরকারপ্রধান এগুলোকে ভাঙতে চান, চেঞ্চ করতে চান। কিন্তু এট দ্য সেম টাইম লিমিটেড বাই ভেরি প্র্যাকটিক্যাল কিছু স্টাবলিশ স্টেকহোল্ডার বা কায়েমে স্বার্থ যেটাকে বলা হয়, যারা আছেন তারা তাকে পদে পদে বাধা দেন। এগুলো ডিঙিয়ে কাজটা তাকে চালিয়ে যেতে হবে।