• মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ১০ ১৪৩১

  • || ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
ঢাকা সফরে কাতারের আমির, হতে পারে ১১ চুক্তি-সমঝোতা জলবায়ু ইস্যুতে দীর্ঘমেয়াদি কর্মসূচি নিয়েছে বাংলাদেশ দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সর্বদা প্রস্তুত : প্রধানমন্ত্রী দেশীয় খেলাকে সমান সুযোগ দিন: প্রধানমন্ত্রী খেলাধুলার মধ্য দিয়ে আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে: রাষ্ট্রপতি শারীরিক ও মানসিক বিকাশে খেলাধুলা গুরুত্বপূর্ণ: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই: প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে পশুপালন ও মাংস প্রক্রিয়াকরণের তাগিদ জাতির পিতা বেঁচে থাকলে বহু আগেই বাংলাদেশ আরও উন্নত হতো মধ্যপ্রাচ্যের অস্থিরতার প্রতি নজর রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রী আজ প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করবেন মন্ত্রী-এমপিদের প্রভাব না খাটানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর দলের নেতাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানায় শেখ হাসিনা মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বর্তমান প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস জানতে পারবে মুজিবনগর দিবস বাঙালির ইতিহাসে অবিস্মরণীয় দিন: প্রধানমন্ত্রী ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ নতুন বছর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে : প্রধানমন্ত্রী আ.লীগ ক্ষমতায় আসে জনগণকে দিতে, আর বিএনপি আসে নিতে: প্রধানমন্ত্রী

শিগগির মোবাইল ডেটা রেট নির্ধারণ করা হবে: মোস্তাফা জব্বার

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০২২  

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, শিগগির বাংলাদেশের সব মোবাইল অপারেটরের জন্য একটি মোবাইল ডেটা রেট নির্ধারণ করা হবে। যাতে কোনো মোবাইল অপারেটর সাধারণ মানুষের থেকে আলাদাভাবে দায়িত্ব নিতে না পারে।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) অষ্টম আন্তর্জাতিক ফায়ার, সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সিবিশনের (আইএফএসএসই) সমাপনী দিনে ‘ডিজিটাল অ্যান্ড সাইবার সিকিউরিটি’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তৃতায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স (বিএফএসসিডি) যৌথভাবে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক এক্সপোর আয়োজন করে ইলেকট্রনিক্স সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইএসএসএবি)।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে আমরা চারটি অপারেটরের জন্য মোবাইল ডেটা টাইম বাউন্ড নিশ্চিত করতে সক্ষম করেছি। আমরা সব অপারেটরের জন্য মোবাইল ডেটা রেট নির্ধারণ করার কথা ভাবছি যাতে কেউ জনগণের কাছ থেকে অতিরিক্ত চার্জ নিতে না পারে।

তিনি বলেন, এখন মানুষ মোবাইল ছাড়া চিন্তা করতে পারে না। এটি দৈনন্দিন জীবনের একটি বন্দর হয়ে ওঠে। তবে, আমাদের এর ব্যবহার এবং সাইবার নিরাপত্তা সমস্যা সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। কারণ সাইবার ঝুঁকি দিন দিন বাড়ছে। সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে জনগণকে সচেতন করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ব্যবসায়ীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, সরকার ফ্রিল্যান্সারদের জন্যও পেমেন্ট সিস্টেম সহজ করতে কাজ করছে। এখানে ব্যবসা করার জন্য প্যাপল এর জন্য বাংলাদেশের কোনো সীমাবদ্ধতা নেই। সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ পাস করেছে।

মন্ত্রী বলেন, আমি বাংলাদেশের ২৬ হাজার পর্ন সাইট এবং ৬ হাজার জুয়ার সাইট বন্ধ করে দিয়েছি। কেউ যদি আমাকে এগুলোর লিঙ্ক দেয় তাহলে আমি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাইটটি বন্ধ করে দেব। বিশ্বে বাংলাদেশ ৫ আইআরে নেতৃত্ব দেবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে সাইবার আসক্তি থেকে সবাইকে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন এফবিসিসিআই-এর আইসিটি বিষয়ক স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মো. শহীদ উল মুনীর। তিনি বলেন, আমাদের ডিজিটাল গ্যাজেট ব্যবহার করা উচিত কিন্তু জ্ঞান অর্জনের আশায় এখানে বেশি সময় নষ্ট করা উচিত নয়। ইন্টারনেটে ইতিবাচক এবং নেতিবাচক জিনিস রয়েছে। আমাদের ইতিবাচক জিনিস নিতে হবে।

তিনি শিশু ও যুবকদের সঠিকভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে এবং সাইবার ঝুঁকি থেকে বাঁচানোর জন্য অভিভাবকদের অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে ইসাব সভাপতি জহির উদ্দিন বাবর অগ্নি নিরাপত্তা ইস্যুতে সরকারকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান যাতে দেশ ও এর জনগণ সঠিকভাবে সুবিধা পায়।

ই-ক্যাবের পরিচালক ইমুন হক সজীব, বেকোর মহাসচিব তৌহিদ হোসেন, ইএসএসএবি কোষাধ্যক্ষ মো. মাহমুদ কে খোদা, পরিচালক প্রকৌশলী মো. মনজুর আলম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

ইসাবের যুগ্ম মহাসচিব জাকির উদ্দিন আহমেদ সেমিনার পরিচালনা করেন এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এর মহাসচিব মাহমুদুর রশীদ। তিনি জানান, তিন দিনের এক্সপোতে প্রায় ১২৫০০ দর্শক এসেছেন। এক্সপোতে ১০০টির বেশি ব্র্যান্ড অংশ নিয়েছে এবং ৩০টি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে এসেছে।

তিনি আরও বলেন, আগের প্রদর্শনীর তুলনায় এ বছর আমরা মানুষের কাছ থেকে ভালো সাড়া পেয়েছি। আমরা আশা করছি যে আমরা এখানে আরও বড় এক্সপোর আয়োজন করতে পারবো, যাতে একটি নিরাপদ দেশ গড়তে আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবনে অগ্নি নিরাপত্তা সরঞ্জাম ব্যবহার করে মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করা যায়।