• বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৪ ১৪৩০

  • || ১৬ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে পুলিশ নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের পরীক্ষায় বারবার উত্তীর্ণ হয়েছে পুলিশ জনগণের আস্থা অর্জন করলে ভোট পাবেন: জনপ্রতিনিধিদের প্রধানমন্ত্রী জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে উন্নয়ন কাজের ব্যবস্থাটা আমরা নিয়েছিলাম কেউ যেন ভুয়া ক্লিনিক-চিকিৎসকের দ্বারা প্রতারিত না হন: রাষ্ট্রপতি স্থানীয় সরকার বিভাগে বাজেট বরাদ্দ ৬ গুণ বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকারকে মাটি-মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক গড়তে হবে শবে বরাতের মাহাত্ম্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের কাজে আত্মনিয়োগের আহ্বান সমাজের অসহায়, দরিদ্র মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে দেশের মানুষের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে বিচারকদের ক্ষমতার অপব্যবহার রোধকল্পে খেয়াল রাখার আহ্বান মিউনিখ সফরে বাংলাদেশের অঙ্গীকার বলিষ্ঠরূপে প্রতিফলিত হয়েছে পবিত্র রমজানে নিত্যপণ্যের সংকট হবে না: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা

চট্টগ্রামে শেখ হাসিনার সমাবেশ: সাগর নয়, এ যেন মহাসমুদ্র

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২২  

আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনসভা মঞ্চে ওঠার আগেই লাখো মানুষের জনস্রোতে মহাসমুদ্রে পরিণত হয়েছিল চট্টগ্রামের রেলওয়ে পলোগ্রাউন্ড মাঠ। রবিবার সকাল ১০টা থেকেই চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরের বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসেন।

সকাল ১১টা থেকে নগরীর পলোগ্রাউন্ড মাঠের প্রবেশমুখ, টাইগার পাস মোড়, লালখান বাজার, দামপাড়া, জিইসি. দুই নম্বর গেইট, নিউ মার্কেট, আগ্রাবাদসহ বিভিন্ন এলাকা থেকেই মানুষের জনস্রোত লক্ষ্য করা যায়।

চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রং বেরংয়ের টি শার্ট পরে ও বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে জনসভাস্থলের আশেপাশে এসে অবস্থান নিতে থাকেন নেতাকর্মীরা। নগরীর সিআরবি, পুরোনো রেলস্টেশন, টাইগারপাসে সমবেত হয়ে বড় বড় মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসা অব্যাহত ছিল। তাদের স্লোগোনে-স্লোগানে মুখর ছিল জনসভাস্থল ও চট্টগ্রামের রাজপথ।

চট্টগ্রাম জেলা রাউজান, রাঙ্গুনিয়া, হাটহাজারী, ফটিকছড়ি, মিরসরাই, সীতাকুণ্ড, বোয়ালখালী, বাঁশখালী, কর্ণফুলী, পদুয়া, চন্দনাইশ, সাতকানিয়া, দোহাজারী, চকরিয়া, কক্সবাজার, উখিয়া, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবানসহ বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে লাখো নেতাকর্মী যোগ দেন প্রধানমন্ত্রীর জনসভায়। 

দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, পলোগ্রাউন্ড মাঠে জায়গা না পেয়ে অনেক নেতাকর্মী সামনের সড়কে অবস্থান নেন। পাশের এলাকা সিআরবি, টাইগারপাস, কদমতলী এলাকায়ও নেতাকর্মীদের অবস্থান করতে দেখা গেছে। এরআগে শনিবার রাতেও অনেকে নগরীতে এসে পৌঁছান। দূরবর্তী উপজেলাগুলো থেকে আসা নেতাকর্মীরা শনিবার রাতেই নগরীর বিভিন্ন কমিউনিটি সেন্টারে এসে অবস্থান নেন।

তীব্র রোদ ও গরম উপেক্ষা করে দুপুরের আগেই রীতিমত জনসমুদ্রে পরিণত হয় পলোগ্রাউন্ড মাঠ। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, স্মরণকালের সর্ববৃহৎ জনসভা পলোগ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রীর আজকের জনসভা। এই জনসভায় কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষ সমবেত হয়। দুপুর নাগাদ পুরো জনসভাস্থল মাহাসমুদ্রে রূপ নেয়।