• রোববার ২৬ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
ঢাকায় কোনো বস্তি থাকবে না, দিনমজুররাও ফ্ল্যাটে থাকবে অগ্নিসংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি বঙ্গবাজারে বিপণী বিতানসহ চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন নজরুলের বলিষ্ঠ লেখনী মানুষকে মুক্তি সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছে জোটের শরিক দলগুলোকে সংগঠিত ও জনপ্রিয় করতে নির্দেশ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে রেমাল বঙ্গবাজার বিপনী বিতানসহ ৪ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির

অবকাশে যেসব দিনে হাইকোর্টে চলবে বিচার কাজ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৪ মার্চ ২০২৪  

রোববার (৪ মার্চ) থেকে শুরু হওয়া প্রায় এক মাসের অবকাশকালীন ছুটিতে হাইকোর্টে বিচারকাজ পরিচালনার জন্য ১১ টি বেঞ্চ গঠন করেছেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। এ বিষয়ে সম্প্রতি হাইকোর্ট বিভাগের ডেপুটি রেজিস্ট্রার (প্রশাসন ও বিচার) মো. মিজানুর রহমানের স্বাক্ষরে বিজ্ঞপ্তি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ মার্চ  রোববার থেকে ১৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হাইকোর্ট বিভাগের বিচারকাজ পরিচালনার জন্য প্রধান বিচারপতি ২০২৪ সালের ১০৭ ও ১১১ নং গঠনবিধি অনুসারে অবকাশকালীন বেঞ্চসমূহ গঠন করেছেন।  

এর মধ্যে ৭টি দ্বৈত বেঞ্চ । বাকি ৪টি একক বেঞ্চ।

বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৫ মার্চ, ২৭ মার্চ, ১ এপ্রিল, ২ এপ্রিল, ৩ এপ্রিল, ১৬ এপ্রিল ও ১৭ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত রিট শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি মো.খসরুজ্জামান ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ারের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৪ মার্চ, ২৫ মার্চ,৩১ মার্চ, ১ এপ্রিল,২ এপ্রিল, ৮ এপ্রিল,৯ এপ্রিল, ১৭ এপ্রিল ও ১৮ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর সোয়া একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত রিট শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৪ মার্চ, ২৭ মার্চ, ১ এপ্রিল,২ এপ্রিল, ৮ এপ্রিল, ১৭ এপ্রিল ও ১৮ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর সোয়া একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত কোম্পানি আইনের আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি মো.মজিবুর রহমান মিয়ার একক হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৫ মার্চ, ২৭ মার্চ, ২৮ মার্চ, ৩১ মার্চ, ২ এপ্রিল,৩ এপ্রিল, ৪ এপ্রিল,৮ এপ্রিল, ১৭ এপ্রিল ও ১৮ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত দেওয়ানি ও  কোম্পানি আইনের আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি আবু তাহের মো.সাইফুর রহমান ও বিচারপতি শাহেদ নূরউদ্দিনের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৫ মার্চ, ২৭ মার্চ, ২৮ মার্চ,  ৩১ মার্চ, ১ এপ্রিল,২ এপ্রিল ও ৩ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত ফৌজদারি আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি মো.শাহিনুর ইসলাম ও বিচারপতি সরদার মো.রাশেদ জাহাঙ্গীরের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৭ মার্চ, ২৮ মার্চ, ১ এপ্রিল,২ এপ্রিল, ১৭ এপ্রিল ও ১৮ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর সোয়া একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত রিট ও ফৌজদারি আবেদন (দুদক ও মানিলণ্ডারিং ব্যতীত) শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি কাশেফা হোসেন ও বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৫ মার্চ, ২৭ মার্চ, ১ এপ্রিল, ৩ এপ্রিল ও ৪ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত রিট আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি ভীষ্মদেব চত্রবর্তী ও বিচারপতি এ কে এম রবিউল হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৪ মার্চ,২৫ মার্চ,২৭ মার্চ, ২৮ মার্চ,৩১ মার্চ, ১ এপ্রিল ও ২ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর সোয়া একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত দেওয়ানি আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি মো.ইকবাল কবির ও বিচারপতি মো.আখতারুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৭ মার্চ, ২৮ মার্চ,  ৩১ মার্চ, ১ এপ্রিল,৩ এপ্রিল,১৫ এপ্রিল ও ১৬ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর সোয়া একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত ফৌজদারি আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি ফাতেমা নজীবের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৪ মার্চ, ২৫ মার্চ, ২৮ মার্চ, ৩১ মার্চ, ১ এপ্রিল,৩ এপ্রিল  ও ৪ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর সোয় একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত দেওয়ানি ও ফৌজদারি আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

বিচারপতি মো.খায়রুল আলমের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ ২৪ মার্চ, ২৫ মার্চ, ২৭ মার্চ, ২৮ মার্চ, ১ এপ্রিল,২ এপ্রিল, ৩ এপ্রিল,৪ এপ্রিল, ও ১৮ এপ্রিল সকাল ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত অতীব জরুরি বিষয়াদি সংক্রান্ত দেওয়ানি ফৌজদারি আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।