• সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩ ১৪৩১

  • || ০৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে বাংলাদেশ ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করতে আগ্রহী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বিনিময় অ্যাক্রেডিটেশন দেশের অর্থনীতিকে সুদৃঢ় করতে সহায়তা করে: রাষ্ট্রপতি

নতুন ধরনের প্রতারণার কথা জানাল পুলিশ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৯ মে ২০২৪  

তিনি একাধারে ক্রেতা, বিক্রেতা এবং ডিলার। ক্রেতা সেজে যান ডিলারের কাছে। বিক্রেতা সেজে যান আবার ক্রেতার কাছে। আর এভাবেই নির্মাণাধীন ভবন মালিকদের কাছে রড সরবরাহের কথা বলে হাতিয়ে নেন লাখ লাখ টাকা। আরিফুর রহমান নামে একজনকে গ্রেফতারের পর পুলিশ বলছে, প্রতারণার নতুন একটি ধরণ সম্পর্কে জানতে পেরেছেন তারা। সময় সংবাদকে এসব তথ্য জানিয়েছেন কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাব উদ্দিন কবির।

রাজধানীর কদমতলীর চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকার একটি বাসায় সম্প্রতি অভিযান চালায় পুলিশ। বাসাটির নিচতলার এক ভাড়াটিয়ার খাটের নিচে লুকিয়ে রাখা আট লাখ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। আর এই টাকা উদ্ধারে পুলিশকে ঢাকা থেক নরসিংদী, সেখান থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পরে আবারও ঢাকা এভাবে কয়েক দিন অভিযান চালাতে হয়েছে। যাকে গ্রেফতার করা হয়েছে তার নাম আরিফুর রহমান।

পুলিশ জানিয়েছে, নির্মাণাধীন একটি ভবনের মালিককে ১১ লাখ ২০ হাজার টাকার রড সরবরাহের কথা ছিল আরিফুর রহমানের। ওই ভবন মালিক রড প্রস্তুতকারক কোম্পানির অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন রডের জন্য। রড আর আসে না। খবর নিয়ে জানতে পারেন আরিফুর রহমান রড বিক্রি করে পালিয়ে গেছেন।

এই মামলা তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ প্রতারণার একটি নতুন ধরণ সম্পর্কে জানতে পেরেছে। গ্রেফতারকৃত আরিফুর নিজেকে বড় একজন রড বিক্রেতা পরিচয় দিয়ে নির্মাণাধীন ভবন মালিকদের টার্গেট করেন। কেউ তার কাছ থেকে রড কিনতে রাজি হলে কোম্পানির অ্যাকাউন্ট নম্বরে টাকা পাঠাতে বলেন। টাকা জমার রশিদ নিয়ে আরিফ যান কোম্পানির কাছে। একটি ডিলারের ঠিকানা দিয়ে অর্ডারকৃত রড পাঠাতে বলেন। পরে সেখান থেকে ওই রড নিয়ে অন্য কোথাও বিক্রি করে দেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাব উদ্দিন কবির বলেন, ক্রেতা সেজে আরিফুর রহমান যান ডিলারের কাছে। বিক্রেতা সেজে যান আবার ক্রেতার কাছে। এভাবে অসংখ্য মানুষের কাছ থেকে রড সরবরাহের কথা বলে বিপুল টাকা হাতিয়ে নেয়ার তথ্যপ্রমাণ পাওয়া গেছে।

‘তদন্ত করে দেখেছি, তিনি এর আগেও বেশকিছু ঘটনা ঘটিয়েছেন। বিশেষ করে রড প্রতরণা তার একটি অভিনব প্রতারণার পদ্ধতি’, যোগ করেন পুলিশের এ কর্মকর্তা।