• বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর ব্যাংক খাতের পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ১০ ডিসেম্বর বিএনপির মহাসমাবেশ, পরিবহন ধর্মঘট না ডাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা সংঘাত-দুর্যোগে নারীদের দুর্দশা বহুগুণ বাড়ে: প্রধানমন্ত্রী সচিবদের যেসব নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী জিয়া-খালেদা-তারেক খুনি: প্রধানমন্ত্রী জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মজীবী মহিলা হোস্টেল হবে: প্রধানমন্ত্রী সূচকের ওঠানামায় পুঁজিবাজারে চলছে লেনদেন দুপুরে সচিবদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চার করে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি মিছিল-মিটিংয়ে আপত্তি নেই, মানুষের ওপর হামলায় সহ্য করবো না ‘যারা গ্রেনেড দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা?

দেশব্যাপী প্রাথমিক শিক্ষক বদলি শুরুর পরিকল্পনা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২  

২০২০ সাল থেকে বন্ধ আছে প্রাথমিক শিক্ষক বদলি কার্যক্রম। আগামী জানুয়ারিতে দেশব্যাপী এই প্রক্রিয়া শুরু হবে। জানুযারি থেকে মার্চ পর্যন্ত বদলি কার্যক্রম চলবে অনলাইনে। আর প্রশাসনিক বদলি চলবে সারা বছর। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিদ্যালয়) মহিবুর রহমান বলেন, ‘আন্তঃউপজেলা বদলি শুরু হয়েছে অনলাইন বদলি নির্দেশিকা অনুযায়ী। দেশব্যাপী বদলি কার্যক্রম শুরু হবে আগামী জানুয়ারি থেকে। মার্চের পর্যন্ত তিন মাস ধরে তা চলবে। আর প্রশাসনিক বদলি যে কোনও সময় করা হবে।’

গাজীপুরের কালিয়াকৈড় উপজেলায় অনলাইনে বদলির পাইলটিংয়ের পর গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে পরবর্তী ১৫ দিনের জন্য বদলি আবেদন আহ্বান করা হয়।  এর মধ্য দিয়ে অনলাইনে আন্তঃউপজেলা (উপজেলার মধ্যে এক বিদ্যালয় থেকে অন্য বিদ্যালয়ে) বদলি কার্যক্রম উন্মুক্ত করা হয়। তবে বদলির জন্য ইচ্ছুক হাজারও সহকারী শিক্ষক বদলি হতে আবেদন করতে পারছেন না বলে শিক্ষকরা জানিয়েছেন।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১৫ সেপ্টেম্বর আন্তঃউপজেলা বদলির আবেদন চাওয়া হলেও উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে বদলি কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়। শূন্য পদে ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের পর জানুয়ারি থেকে দেশব্যাপী এই বদলি কার্যক্রম শুরু হবে।

মন্ত্রণালয় জানায়, বদলি নীতিমালা অনুযায়ী এর আগে প্রতি বছর জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত বদলি শিক্ষক করা হতো। তবে এই বদলিতে তদবিরের মাধ্যমে রাজধানী ও নগর-মহানগরে বদলি হয়ে আসার সুযোগ নেন অনেকেই। ফলে মফস্বলের বিদ্যালয়গুলো শিক্ষক সংকট তৈরি হয়।

সূত্র জানায়, অনেকে তদবির করে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সংযুক্তি নিয়ে চলে আসেন নগর বা মহানগরে। কেউ থাকতে চান না মফস্বলের বিদ্যালয়ে। অথচ উপজেলাভিত্তিক শূন্য পদে আবেদন করে চাকরি নিয়েছিলেন তারা। এসব বদলিতে তদবির বাণিজ্যের অভিযোগ ওঠে বার বার। এই কারণে অনলাইনে শিক্ষক বদলি চালু করতে ২০২০ সালে বদলি কার্যক্রম বন্ধ করে মন্ত্রণালয়। অনলাইন সফটওয়ার প্রস্তুত করে বদলির ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তবে নানা কারণে এই বদলি কার্যক্রম দীর্ঘায়িত করে মন্ত্রণালয়।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বদলি হতে ইচ্ছুক শিক্ষকরা বলছেন— নীতিমালার ৩.৩ ধারায় ‘অথবা’ দিয়ে দুটি শর্ত দেওয়া হয়েছে। এর যে কোনও একটি পূরণ করলেই আবেদন করতে পারার কথা। কিন্তু দুটি পূরণ না হলে আবেদন নিচ্ছে না। এটি নীতিমালার কারণে নয়। সফটওয়ার ত্রুটির কারণে।

সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ শামছুদ্দীন মাসুদ বলেন, ‘নিয়োগ সাপেক্ষে বদলি এবং অনলাইন বদলি চালু করলে শিক্ষকরা অনেকে আবেদন করার সুযোগ পাবেন। মিউচ্যুয়াল বদলির সুযোগ দিলে এই সমস্যা থাকবে না।  আর সফটওয়ারে ত্রুটি থাকলে তা দ্রুত সংশোধন করা উচিত।’

বদলি নির্দেশিকায় প্রশাসনিক বদলির শর্তে বলা হয়, আচরণবিধি লঙ্ঘন বা শৃঙ্খলাজনিত কারণে প্রশাসনিক বদলি করা যাবে। তবে সেক্ষেত্রে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় উপপরিচালক প্রশাসনিক বদলির জন্য মহাপরিচালক বরাবর সুপারিশ পাঠাবেন। প্রশাসনিক কারণে বদলি হওয়ার তিন বছরের মধ্যে কোনও শিক্ষক পুনঃবদলির জন্য আবেদন করতে পারবেন না। একই উপজেলার বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে শ্রেণিকক্ষ বা শিক্ষক-ছাত্র সংখ্যার অনুপাতে শিক্ষকদের সুষম বণ্টন নিশ্চিত করার প্রয়োজনে মহাপরিচালক বিদ্যালয়ভিত্তিক শিক্ষক সমন্বয় বদলির আদেশ জারি করবেন।