• বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ নেদারল্যান্ডস, যুক্তরাজ্য, আজারবাইজান থেকে বড় বিনিয়োগ আহ্বান জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শান্তি ফর্মুলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার সহযোগিতা চাইলেন জেলেনস্কি কাতারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন শেখ হাসিনা কিছু খুচরো দল তিড়িং বিড়িং করে লাফাচ্ছে: শেখ হাসিনা মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন

এ সময়ের সর্দি-কাশি করোনার নতুন সাব ভ্যারিয়েন্ট লক্ষণ নয় তো?

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০২৪  

শীত আসতেই কোভিড সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে। এরই মধ্যে দেশেও করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ২৭ জানুয়ারির বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, দেশে এ পর্যন্ত ২০ লাখ ৪৬ হাজার ৯৬৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। প্রাণ গেছে ২৯ হাজার ৪৮১ জনের। এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক শূন্য ৯ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ।

বুঝতেই পারছেন আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে করোনাভাইরাস। এবার করোনার নতুন সাব ভ্যারিয়েন্ট জেএন.১ চোখ রাঙাচ্ছে। আক্রান্তের সংখ্যার পাশাপাশি ঘটছে করোনার কারণে মৃত্যুও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকেও সতর্ক করা হচ্ছে এ বিষয়ে।

করোনার নতুন সাব ভ্যারিয়েন্ট জেএন.১ এর উপসর্গগুলো কী কী, তা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- জ্বর, সর্দি, গলা ব্যথা, মাথাব্যথা ইত্যাদি।

তবে এই উপসর্গগুলো কিন্তু সাধারণ জ্বর-সর্দির ক্ষেত্রেই সাধারণ। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুসারে, নতুন কোভিড ভ্যারিয়েন্টের লক্ষণগুলো হালকা থেকে মাঝারি হয়।

যেমন- জ্বর, সর্দি, গলা ব্যথা ও মাথাব্যথা হতে পারে। সাধারণত চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে অবস্থার উন্নতিও হচ্ছে। খিদে কমে যেতে পারে। এর পাশাপাশি ক্রমাগত বমি বমি ভাব হতে পারে। জেএন.১ রূপের আরেকটি উল্লেখযোগ্য লক্ষণ হলো চরম ক্লান্তি।

অত্যধিক ক্লান্তি ও পেশীর দুর্বলতা। কোনো কোনো ক্ষেত্রে আক্রান্ত ব্যক্তির গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল সমস্যাও দেখা যেতে পারে, যা থেকে হজমের সমস্যা হতে পারে।