• শনিবার ২৫ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
ঢাকায় কোনো বস্তি থাকবে না, দিনমজুররাও ফ্ল্যাটে থাকবে অগ্নিসংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি বঙ্গবাজারে বিপণী বিতানসহ চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন নজরুলের বলিষ্ঠ লেখনী মানুষকে মুক্তি সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছে জোটের শরিক দলগুলোকে সংগঠিত ও জনপ্রিয় করতে নির্দেশ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে রেমাল বঙ্গবাজার বিপনী বিতানসহ ৪ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির

দেশের মধ্যে ভ্রমণে আগ্রহ বাড়ছে

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২৪  

প্রতিবছর যেখানে দেশের বাইরে বেশি মানুষ ঈদের ছুটিতে ভ্রমণ করত, সেখানে এ বছর দেশের মধ্যে ভ্রমণকারীর সংখ্যা বেশি দেখা গেছে। বিজ্ঞজনেরা বলছেন, গতবছর ঈদকে কেন্দ্র করে দেশীয় পর্যটন শিল্পে আয় ছিল এক থেকে দেড় হাজার কোটি টাকা। এবার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার কোটি টাকায়। তারা আশা করছেন, পর্যটন খাতে আয় জিডিপিতে ৩ শতাংশ, যা এ বছরই ৪ শতাংশ করা সম্ভব।

দেশের মধ্যে বিলাসবহুল রিসোর্টের সংখ্যা বাড়ছে, যা  দেশের মধ্যে ভ্রমণ কয়েকগুণ বাড়িয়েছে বলে জানান ট্যুরিজম ডেভেলপারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টিডাব) সাবেক চেয়ারম্যান এবং সেন্টার ট্যুরিজম স্টাডিজের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জামিউল আহমেদ।

তিনি বলেন, ঈদকে কেন্দ্রে করে এ বছর কয়েক লাখ মানুষ দেশের মধ্যে ও দেশের বাইরে ভ্রমণ করেছে। দেশের মধ্যে ভালো ভালো রিসোর্ট হওয়ার কারণে অনেকেই এখন উৎসবের ছুটিকে কাজে লাগিয়ে দেশের মধ্যে ভ্রমণ করছে। এতে যারা অল্প খরচে দেশের বাইরে ট্যুর করত, তারা দেশের মধ্যে ভ্রমণে আগ্রহী হচ্ছে। ফলে অভ্যন্তরীণ ভ্রমণে দেশে আয়ও বেড়েছে কয়েকগুণ।

পর্যটন বিশেষজ্ঞ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. সন্তোষ কুমার দেব জানান, ঈদের ছুটিতে অন্য বছর বেশি দেশের বাইরে ভ্রমণ করলেও এবছর বেশি মানুষ দেশের মধ্যে ভ্রমণ করেছে। এ বছর সবচেয়ে বেশিসংখ্যক মানুষ বৃহত্তর সিলেটে ভ্রমণ করেছে। টাঙ্গুয়ার হাওর, জাফলং, মাধবকুণ্ড, শ্রীমঙ্গল, লাউয়াছড়া, বিছানাকান্দি প্রভৃতি স্থানে প্রকৃতিপ্রেমীরা ভিড় করেছে। এছাড়া কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান, কুয়াকাটা, সেন্টমার্টিন দেশীয় ভ্রমণকারীদের পছন্দের তালিকায় উচ্চস্থানে রয়েছে।

ড. সন্তোষ কুমার দেব আরও বলেন, দেশের মধ্যে ভ্রমণে নিরাপত্তা আগের চেয়ে বেড়েছে। অনেক মানুষ এখন পর্যটননির্ভর বিনিয়োগ করছেন, মানুষের কর্মসংস্থান হচ্ছে। দেশের মধ্যে ভ্রমণের সংস্কৃতি তৈরি হয়েছে। তবে রিসোর্টের ব্যয়, খাদ্যের মান ও দাম, নিরাপত্তাসহ নানা প্রতিবন্ধকতা দেশে ভ্রমণের জন্য এখনো অন্তরায় বলে তিনি মনে করেন।