• রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
সূচকের ওঠানামায় পুঁজিবাজারে চলছে লেনদেন দুপুরে সচিবদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চার করে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি মিছিল-মিটিংয়ে আপত্তি নেই, মানুষের ওপর হামলায় সহ্য করবো না ‘যারা গ্রেনেড দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা? যারা উন্নয়ন দেখে না, তারা চাইলে চোখের ডাক্তার দেখাতে পারে- প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত আ.লীগ স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধুর খুনিকে লালন-পালন করছে: প্রধানমন্ত্রী সচিব সভায় ১০ নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী ব্যাংকে টাকা না থাকার গুজবে চোরেরা সুযোগ নেবে: প্রধানমন্ত্রী ‘রিজার্ভ নিয়ে সমস্যা নেই, সব ব্যাংকে টাকা আছে’ ‘যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেবো, ওয়াদা দেন নৌকায় ভোট দেবেন’ রক্ত ও হত্যা ছাড়া বিএনপি কিছু দিতে পারেনি : প্রধানমন্ত্রী বিমানবাহিনী এখন অনেক বেশি শক্তিশালী, আধুনিক ও চৌকস: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অর্থনীতি এখনও গতিশীল, নিরাপদ: প্রধানমন্ত্রী যশোরে বিমান বাহিনীর কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রী আমাদের ছেলে-মেয়েরা একদিন বিশ্বকাপ খেলবে: প্রধানমন্ত্রী

চিতল মাছের কোফতা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৬ অক্টোবর ২০২২  

মাছের কোফতার সঙ্গে যদি এক প্লেট গরম ভাত হয়- পেট পুরে খেতে পারে বাঙালি। এমনিতেই মাছের সঙ্গে ভাতের একটা গভীর সম্পর্ক আছে। কোফতার ঘ্রাণ খাবার গ্রহণের ইচ্ছা আরো বাড়িয়ে দেয়। আজকের রেসিপি চিতল মাছের কোফতা।
উপকরণ: চিতল অথবা যেকোনো বড় মাছের  টুকরা পাঁচটি। ময়দা পাঁচ টেবিলচামচ। ব্রেডক্রাম্ব দুই টেবিল চামচ। একটি বড় আলুসিদ্ধ। তেল চার টেবিল চামচ। পেঁয়াজবাটা দুই টেবিল চামচ। পেঁয়াজকুচি আধা কাপ। আদাবাটা আধা চা চামচ। রসুনবাটা সিকি চা চামচ। লবণ স্বাদ মতো। লালমরিচ গুঁড়া দেড় চা চামচ। হলুদগুঁড়া আধা চা চামচ। ধনিয়া গুঁড়া এক চা চামচ। জিরাগুঁড়া সিকি চা চামচ। গরম মসলার গুঁড়া সামান্য। টমেটো-কুচি আধা কাপ। নারিকেল দুধ এক কাপ। কাঁচামরিচ চারটি। চিনি সামান্য।

প্রণালী: মাছ ধুয়ে তাতে সামান্য লবণ, হলুদগুঁড়া, আদা ও রসুন বাটা এবং এক কাপের মতো পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিন। অন্যদিকে আলু সিদ্ধ করে তুলে রাখুন। মাছ সিদ্ধ হলে পানি থেকে তুলে মাছের কাঁটা বেছে নিন। মাছে যেন কোনো পানি না থাকে। নাহলে কোফতা খুলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। দরকার পড়লে মাছ তুলে হালকা হাতে টিস্যু দিয়ে মুছেও নিতে পারেন। এবার মাছের সঙ্গে আলুসিদ্ধ, স্বাদ মতো লবণ, কাঁচামরিচ মিহিকুচি, ময়দা, ব্রেডক্রাম্ব ও একটু তেল  মিশিয়ে কোফতা বানিয়ে নিন। প্যানে পরিমাণ মতো তেল দিয়ে আস্তে আস্তে ভেজে সব কোফতা তুলে রাখুন।

অন্য কড়াইতে তেল গরম হলে- পেঁয়াজকুচি বাদামি করে ভেজে তাতে পেঁয়াজবাটা, আদা ও রসুন বাটা, মরিচগুঁড়া, হলুদগুঁড়া, ধনিয়াগুঁড়া, টমেটো কুচি ও স্বাদ মতো লবণ দিয়ে দিন। এবার সামান্য পানিসহ মসলা  কষিয়ে নিন। মশলা থেকে তেল ছেড়ে আসলে পরিমাণ মতো পানি ও নারিকেল দুধ দিয়ে কোফতাগুলো ঢেলে দিন। খেয়াল রাখবেন চুলার আঁচ মাঝারি থাকবে। কোফতাগুলো বার বার চামচ দিয়ে নাড়বেন না। তাহলে ভেঙে যাবে। বরং কড়াই ধরে নেড়ে দেবেন।

কোফতা ১০ মিনিট ঢাকনা দিয়ে রেখে দিন। তারপর ঢাকনা তুলে সব স্বাদ ঠিক আছে কিনা দেখে এ পর্যায়ে জিরাগুঁড়া, গরম মসলার গুঁড়া, কাঁচামরিচ ফালি, সামান্য চিনি আর আধা চা চামচের মতো ঘি দিয়ে পাঁচ মিনিট দমে রাখুন। কোফতা চাইলে মাখা মাখা করতে পারেন আবার ঝোল ঝোল নিজের ইচ্ছে। নামিয়ে সাদা ভাতের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন ।