• শনিবার   ১৩ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৮ ১৪২৯

  • || ১৪ মুহররম ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর বিষয়ে পরিষ্কার ব্যাখ্যার নির্দেশ বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত মানবাধিকার কমিশনকে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ রাষ্ট্রপতির ৪০০তম ওয়ানডে খেলার অপেক্ষায় বাংলাদেশ জ্বালানি নিরাপত্তা: বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার অবদান রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে বঙ্গমাতার মনোভাব প্রতিফলিত হয়েছে বঙ্গমাতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা স্বাধীনতার সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর সারথি ছিলেন আমার মা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতা কঠিন দিনগুলোতে ছিলেন দৃঢ় ও অবিচল: রাষ্ট্রপতি ফজিলাতুন নেছা মুজিব দৃঢ়চেতা-বলিষ্ঠ চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ বাংলাদেশে সহায়তা অব্যাহত রাখবে চীন: ওয়াং ই চীনে ৯৯ শতাংশ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছি মায়ের দুধ শিশুর সর্বোত্তম খাবার: রাষ্ট্রপতি শেখ কামাল ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী: প্রধানমন্ত্রী শেখ কামাল ছিলেন ক্রীড়া ও সংস্কৃতিমনা সুকুমার মনোবৃত্তির মানুষ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মর্যাদাকে সমুন্নত করবে যুবসমাজ ‘শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন’ ঘাতকরা আজও তৎপর, আমাকে ও আ’লীগকে সরাতে চায়: প্রধানমন্ত্রী

আম রপ্তানি বাড়াতে ৪৭ কোটি টাকার প্রকল্প

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৪ আগস্ট ২০২২  

দেশে আমের উৎপাদন ৫ শতাংশ বৃদ্ধি, পরিবহনসহ নানা কারণে নষ্ট হওয়া রোধ এবং আমের রপ্তানি বাড়াতে নতুন প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৭ কোটি টাকা। এ প্রকল্পের মাধ্যমে মানসম্মত আম উৎপাদন ও সংরক্ষণ বিষয়ে কৃষক, কর্মকর্তা ও সুবিধাভোগীদের দক্ষতা বৃদ্ধি করা হবে।

‘রফতানিযোগ্য আম উৎপাদন’ শীর্ষক প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (ডিএই)। চলতি বছরের (২০২২ সালের) জুলাই থেকে ২০২৭ সালের জুন মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্পটির ব্যয় ৫০ কোটি টাকার কম হওয়ায় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান নিজ ক্ষমতাবলে এরইমধ্যে তা অনুমোদন দিয়েছেন।

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর, মেহেরপুর ও সাতক্ষীরা জেলায় মানসম্মত আম উৎপাদন হয়। কিন্তু রাজধানী ঢাকা থেকে এসব জেলার দূরত্ব অনেক। প্রতিবছর উৎপাদিত আমের ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ নষ্ট হয় পরিবহন, সংরক্ষণ, বাজারজাতকরণসহ নানা কারণে। তাই নষ্ট হওয়া রোধ করে বিদেশে বাড়তি আম রপ্তানির উদ্যোগ নিতে প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, রপ্তানিমুখী বাজারে আমের সংযোগ স্থাপন এ প্রকল্পের অন্যতম লক্ষ্য। প্রকল্পের আওতায় পাঁচ শতাংশ আমের উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ নষ্ট হওয়া থেকে রক্ষা করা হবে। একই সঙ্গে বিদেশে রপ্তানিযোগ্য আম উৎপাদন বাড়ানো হবে। এতে রপ্তানি বাড়বে দ্বিগুণ।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, দেশের চারটি বিভাগের ১৫টি জেলার ৪৬ উপজেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। এর মধ্যে রাজশাহীর বাঘা, চারঘাট, পুঠিয়া, তানোর, মোহনপুর, নওগাঁর বদলগাছি, সাপাহার, পোরসা, মান্দা, নাটোর সদর, বড়াইগ্রাম, বাগাতিপাড়া, লালপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদর, শিবগঞ্জ, নাচোল, ভোলাহাট, গোমস্তাপুর, রাঙ্গামাটি সদর, নানিয়ারচর, বরকল, বান্দরবান সদর, দিঘীনালায় উপজেলা উল্লেখযোগ্য।