• রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
সূচকের ওঠানামায় পুঁজিবাজারে চলছে লেনদেন দুপুরে সচিবদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চার করে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি মিছিল-মিটিংয়ে আপত্তি নেই, মানুষের ওপর হামলায় সহ্য করবো না ‘যারা গ্রেনেড দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা? যারা উন্নয়ন দেখে না, তারা চাইলে চোখের ডাক্তার দেখাতে পারে- প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত আ.লীগ স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধুর খুনিকে লালন-পালন করছে: প্রধানমন্ত্রী সচিব সভায় ১০ নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী ব্যাংকে টাকা না থাকার গুজবে চোরেরা সুযোগ নেবে: প্রধানমন্ত্রী ‘রিজার্ভ নিয়ে সমস্যা নেই, সব ব্যাংকে টাকা আছে’ ‘যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেবো, ওয়াদা দেন নৌকায় ভোট দেবেন’ রক্ত ও হত্যা ছাড়া বিএনপি কিছু দিতে পারেনি : প্রধানমন্ত্রী বিমানবাহিনী এখন অনেক বেশি শক্তিশালী, আধুনিক ও চৌকস: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অর্থনীতি এখনও গতিশীল, নিরাপদ: প্রধানমন্ত্রী যশোরে বিমান বাহিনীর কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রী আমাদের ছেলে-মেয়েরা একদিন বিশ্বকাপ খেলবে: প্রধানমন্ত্রী

হালকা শীতের পোশাক

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২২  

প্রকৃতিতে শীত আসি আসি করছে। সকাল ও সন্ধ্যায় আলতো পরশ বুলিয়ে দিচ্ছে হিমেল হাওয়া। আবার দুপুরে একটু রোদের উত্তাপ। সব মিলিয়ে আবহাওয়ার মিশ্র অবস্থা চলছে এখন।

এমন আবহাওয়ায় পোশাক নিয়ে দোটানায় পড়েন অনেকেই। এ রকম পরিবেশে সুস্থ ও সুন্দর থাকার জন্য আরামদায়ক পোশাক খুব দরকারি। গরমের শার্ট কিংবা শীতের সোয়েটার এমন আবহাওয়ার সঙ্গে ঠিক যেন খাপ খায় না। শার্টে সেই উষ্ণতা আসে না আবার সোয়েটারে বেশি গরম। নাতিশীতোষ্ণ এই সময়ে স্টাইলে নিজের স্বকীয়তা বজায় রাখতে আবহাওয়ার সঙ্গে মানানসই কাপড়ের পোশাক পরতে হবে। তাই নিয়মিত পোশাক পরার পাশাপাশি হালকা শীতের প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকেই। পোশাকে শুধু স্টাইল স্টেটমেন্ট নয়, সঙ্গে আরাম আর স্বস্তির দিকটায়ও খেয়াল দিতে হবে।

 

kalerkantho

এখনকার আবহাওয়াকে প্রাধান্য দিয়েও নতুন নকশা, থিম ও ম্যাটেরিয়ালের পোশাক নিয়ে এসেছে ফ্যাশন হাউসগুলো। এমন পোশাকের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি মনোযোগ দেওয়া হয়েছে কাপড়ে। এই সময় রেগুলার পোশাকের পরিবর্তে একটু ভিন্ন ও হালকা শীতের পোশাক পরতে পছন্দ করে ফ্যাশনেবল তরুণীরা। হালকা শীতের পোশাকে ফ্লানেল কাপড় বেশ আরামদায়ক।

kalerkantho

ফ্লানেল কাপড়ের পোশাকগুলো একটু উষ্ণ অনুভূতি দেয়। এবারও আমরা ফ্লানেল কাপড়ের সংগ্রহ সাজিয়েছি। আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে এবার ফ্লানেলের পুরুত্ব বাড়িয়ে আরো বেশি আরামদায়ক করার প্রয়াস চালিয়েছি।

kalerkantho

ফ্লানেল কাপড়ের পোশাকগুলো আরো আরামদায়ক করার জন্য ভেতরে ও বাইরে ব্রাশড করা হয়ে থাকে। এতে কাপড়ে কোমল পাইল তৈরি হয়, যা উষ্ণতা ভালোভাবে ধরে রাখে। সুতি ফ্লানেল কাপড় এ রকম আবহাওয়ায় অনায়াসে বেছে নিতে পারেন। ব্র্যান্ডগুলো এবার ট্রেডিশনাল ও আধুনিক প্যাটার্নের এমন শার্ট, লং কামিজ, টপস, টিউনিক নিয়ে এসেছে, যা খুব সহজেই লেগিংস ও জেগিংসের সঙ্গে মানাবে।

kalerkantho

হিম হিম হাওয়ার মধ্যে সিল্ক ও সাটিনের পোশাকেও আরাম ও উষ্ণতা মিলবে। খুব বেশি গরমে সিল্ক ও সাটিন পোশাক ঘেমে-নেয়ে দ্রুত লুকটাই নষ্ট করে দেয়। নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ায় এই ভয় নেই। তাই সন্ধ্যার আড্ডা বা রাতের পার্টিতে সাটিনের শার্ট, টপস, কুর্তি, সিল্কের সালোয়ার-কামিজ, শাড়িতে বেশ মানিয়ে যাবে।
 

kalerkantho

এখনকার আবহাওয়ার পোশাকে কাপড়ের দিকটাতেই বেশি মনোযোগ দেওয়া উচিত। না শীত না গরমের এই মৌসুমে বুদ্ধি করে সঠিক কাপড়ের পোশাক বাছাই না করলে সারা দিন অস্বস্তি বয়ে বেড়াতে হবে। এ জন্য হালকা উল, নিট, সুতি, ফ্লানেল, রেয়ন, ভিসকচ, নাইলন কাপড়ের পোশাকে আরাম পাওয়া যাবে।

kalerkantho

শীতে উলের কাপড়ের আরামের জুড়ি নেই। কিন্তু উলের তৈরি পোশাক পরার মতো শীত এখনো পড়েনি। তবে সকাল বা সন্ধ্যা কিংবা রাতে কটন রিচ উল বা একটু মোটা নিটওয়্যারের পোশাকে আরাম পাওয়া যাবে। কোথাও বেড়াতে গেলে এমন ম্যাটেরিয়ালের একটি পোশাক ব্যাগপ্যাকে নিতে ভুলবেন না। এ ছাড়া রেয়ন ও ভিসকচেও এখন স্বস্তি মিলবে। এখনকার আবহাওয়ায় বহুল পরিচিত এই ফ্যাব্রিকস বেশ সুবিধাজনক।

kalerkantho

কাপড়ের পর প্রাধান্য পেয়েছে পোশাকের প্যাটার্ন ও কাটিং। সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে কটি। যাতে শীত লাগলে কটির বোতাম বা ফিতা আটকে নেওয়া যায়। আবার গরম অনুভূত হলে কটির বোতাম বা ফিতা খুলে দিলেও স্বস্তি পাওয়া যাবে। পোশাকের সঙ্গে অতিরিক্ত ফ্রিল বা ঝুল দিয়েও হালকা শীতের উপযোগী করে তোলা হয়েছে। ট্যাংক টপের ক্ষেত্রে কাঁধের পাশে খোলা রাখা হয়েছে, যাতে বেশি গরম না লাগে। উলের টপের কাটিংয়ে রাখা হয়েছে ঢিলেঢালা ভাব। যাতে শীত ও গরম দুই আবহাওয়াতেই আরাম মেলে।

এ সময় পোশাক পরিধানেও একটু বুদ্ধির পরিচয় দিতে হবে। বাইরে যাওয়ার সময় সঙ্গে একটি ওড়না বা স্কার্ফ রাখতে পারেন। শীতের ধরন বুঝে যাতে গলায় বা গায়ে জড়িয়ে নিতে পারেন।